‘তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম জনস্বার্থে বাড়ছে’

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন,, ‘তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম জনস্বার্থে বাড়ছে’

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন,, ‘তেল-গ্যাস-বিদ্যুতের দাম জনস্বার্থে বাড়ছে’তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম এমনভাবে বাড়ানো হবে যেখানে বিএনপি কোনো আন্দোলন করা সুযোগ পাবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

তিনি বলেন, ‘জনস্বার্থ রক্ষা করে এবং দেশের উন্নয়নের চাকা সচল রেখেই আন্তর্জাতিক বাজার মূল্যের সঙ্গে সমন্বয় করে তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়ানো হবে। সেখানে বিএনপি কোনো আন্দোলন করার সুযোগ পাবে না।’

সোমবার দুপুরে রাজধানীর ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে নৌকা সমর্থক গোষ্ঠী আয়োজিত চলমান রাজনীতি বিষয়ক শীর্ষক এক আলোচান সভায় তিনি এ কথা বলেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল রাজধানীর এক আলোচনা সভায় বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সরকাররের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছিলেন- তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের দাম বাড়লেই লাগাতার কর্মসূচি দেয়া হবে। অবিলম্বে এ সিদ্ধান্ত থেকে সরকারকে সরে আসার আহ্বান জানান তিনি।

আওয়ামী লীগ রাজনীতিতে বন্ধুহীন এবং এক দেশের উপর নির্ভশীল হয়ে পড়েছে বেগম খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, ‘সারা বিশ্বের সঙ্গে আমাদের সরকারের সু-সম্পর্ক রয়েছে। তারই প্রমাণ কমনওয়েলথ পার্লমেন্টরি অ্যাসোসিয়েশনে (সিপিএ) এবং ইন্টারন্যাশনাল পার্লমেন্টরি ইউনিয়নের (আইপিইউ) সভাপতি পদে বাংলাদেশের বর্তমান সংসদের স্পিকার শিরিন শারমিন চৌধুরী ও সংসদ সদস্য সাবের হোসেন চৌধুরী ভোটের মাধ্যমে নির্বাচিত হয়েছেন।’ আওয়ামী লীগ যদি বন্ধুহীন হয় তাহলে বিভিন্ন রাষ্ট্র কেন তাদেরকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছে খালেদা জিয়ার প্রতি প্রশ্ন রাখেন তিনি।

তিনি বলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ঐতিহাসিক। মুক্তিযুদ্ধে তারা আমাদের খাদ্য, বাসস্থান, অস্ত্র ও সৈন্য দিয়ে সহযোগিতা করেছে। এমনকি মুক্তিযুদ্ধে ভারতের ১৮ হাজার সৈন্য প্রাণ দিয়েছে এবং বাংলাদেশের জন্য কূটনৈতিক ও অর্থনৈতিকভাবে সারাবিশ্বে জনমত গঠন করেছে ভারত। তাই ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক শুধু বন্ধুত্বপূর্ণ নয়, বিশেষ সম্পর্কই থাকবে। ভবিষ্যতে এ সম্পর্ক আরো সুদৃঢ় হবে।’

খালেদা জিয়া মিথ্যাচার করে মানুষকে বিপথে পরিচালনা করছে দাবি করে সুরঞ্জিত বলেন, ‘মিথ্যাচার করা থেকে বিরত থাকুন। তাহলে দেশের মঙ্গল হবে।’

দলের কমিটি গঠন করে যেখানে বিদ্রোহীদের পাল্লা ভারি হয়ে যায় সে দল নিয়ে কীভাবে বিএনপি আন্দোলন করবে তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন আওয়ামী লীগের এ নেতা। সুরঞ্জিত বলেন, ‘জানুয়ারি আসবে, জানুয়ারি যাবে। বিএনপিকে আন্দোলনের সুযোগ দেয়া হবে না। যে দলটি ‘অসন্তুষ্টির কমিটি’ নিয়ে নিজ দলের কর্মীরা বিদ্রোহ করে, তাদের দিয়ে আন্দোলন সম্ভব হবে না।’

সংগঠনেরে নেতা সাজ্জাদ হোসেনের সভাপতিত্বে আরো উপস্থিত ছিলেন- সাম্যবাদী দলের নেতা হারুন চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু একাডেমীর মহাসচিব হুমায়ন কবির মিজি প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *