'রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের' অভিযোগের মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় প্রতিবেদন দাখিলের তাগিদ দিয়েছেন আদালত।
জাতীয়

তারেকের ‘রাষ্ট্রদ্রোহের’ প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ

'রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের' অভিযোগের মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় প্রতিবেদন দাখিলের তাগিদ দিয়েছেন আদালত।‘রাষ্ট্রবিরোধী অপপ্রচারের’ অভিযোগের মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলায় প্রতিবেদন দাখিলের তাগিদ দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার ধার্য দিনে প্রতিবেদন দাখিল না করায় মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আমিনুল হক আগামী ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ডিবিকে নির্দেশ দেন।

গত ১৯ অক্টোবর ঢাকার সিএমএম আদালতে এ মামলাটি দায়ের করেছিলেন ফাউন্ডেশনের সভাপতি অ্যাডভোকেট আব্দুল মালেক ওরফে মশিউর মালেক।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, ‘বিএনপির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট তারেক রহমান তার লিখিত ‘জিয়াউর রহমান-ফার্স্ট প্রসিডেন্ট অব বাংলাদেশ’ বইয়ে মিথ্যা কাল্পনিক ও ভুল তথ্যাবলি উল্লেখ করেছেন। তিনি গত ২৯ সেপ্টেম্বর ইস্ট লন্ডনের বেথনাল গ্রিন এলাকার ইয়র্ক হলে যুক্তরাজ্য বিএনপি আয়োজিত ‘বাংলাদেশের প্রথম রাষ্ট্রপতি বিশ্বনেতা শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান প্রেক্ষিত বাংলাদেশ শীর্ষক’ আলোচনা সভায় এক বক্তৃতায় বলেন, ‘শেখ মুজিব বঙ্গবন্ধু নন পাকবন্ধু, তিনি জাতির জনক হতে পারেন না, তিনি হত্যাকারী। আওয়ামী লীগ কখনোই জনগণের মনের ভাষা বুঝতে পারেনি। তারা ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ কিংবা ২৫ মার্চ জনগণের মনের ভাষা বুঝেনি। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ বাংলাদেশের লাখো জনতাকে নিরাপদ মনে করেনি শেখ মুজিব, তিনি নিরাপদ মনে করেন হানাদার বাহিনীকে।’

মামলায় আরো অভিযোগ করা হয়, ‘তারেক রহমান তার বক্তব্যে দেশ এবং দেশের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে দেশের স্বাধীনতা, স্বাধীনতাযুদ্ধের ইতিহাস এবং ওই যুদ্ধে বঙ্গবন্ধুর অবদানকে প্রশ্নবিদ্ধ, বিকৃত ও অস্বীকার করার চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এ ধরনের সকল কার্যক্রমের মাধ্যমে রাষ্ট্রের স্বাধীনতা ও স্বাধীনতা সংগ্রামকে অস্বীকার করা হয়েছে, যা বাংলাদেশ রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ এবং তারেক রহমান দণ্ডবিধির ১২৩ (ক) ধারায় অপরাধ করেছেন বলে বাদী দাবি করেছেন ‘

বাদী তার অভিযোগের শেষে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করে ইন্টারপোলের মাধ্যমে গ্রেফতার করে বিচারের প্রার্থনা জানিয়েছেন। তারেক রহমানকে বাংলাদেশ ও দেশের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারী, দশ ট্রাক অস্ত্র মামলা ও ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার নীলনকশা প্রণয়নকারী উল্লেখ করেছেন বাদী।

এছাড়া বাদী নিজেকে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা দাবি করে বলেন, ‘২০০২ সালের ২৫ জানুয়ারি থেকে বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাভিত্তিক অসাম্প্রদায়িক সোনার বাংলায় পরিণত করার জন্য নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছি।’

বাদী এর আগে গত ১৪ অক্টোবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিবকে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার জন্য একটি লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছিলেন। ওই নোটিশে ৩ দিনের মধ্যে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা রুজু করে ইন্টারপোলের মাধ্যমে গ্রেফতার করে বিচারের সম্মুখীন করার উদ্যোগ নিতে বলা হয়। অন্যথায় পরবর্তী আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে উল্লেখ করেন।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *