তনু হত্যার বিচার দাবিতে উত্তাল সারাদেশ
সারাদেশ

তনু হত্যার বিচার দাবিতে উত্তাল সারাদেশ

তনু হত্যার বিচার দাবিতে উত্তাল সারাদেশ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনুকে পাশবিক নির্যাতন ও হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে দেশের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় কুমিল্লা শহরের কান্দিরপাড় এলাকায় একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন বিভিন্ন কলেজের শিক্ষার্থী এবং কয়েকটি নাট্য সংগঠনের সদস্যরা। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। সমাবেশ শেষে পুলিশ সুপারের কার্যালয় গিয়ে স্মারকলিপি দেয়া হয়।

একই দাবিতে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নেত্রকোনার মোক্তারপাড়া জেলা পরিষদ মার্কেটের সামনের সড়কে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে বাংলাদেশ অনলাইন জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন নেত্রকোনা জেলা শাখা ও নেত্রকোনা নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। এতে বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী, শিক্ষক, সাংবাদিক, রাজনৈতিক-সামাজিক-সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা অংশ নেন। রাবি প্রতিনিধি জানান, সোহাগী জাহান তনুকে ধর্ষণের পর হত্যার প্রতিবাদে রাবিতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্র ইউনিয়ন স্বরাষ্টমন্ত্রীর দায়িত্বে অবহেলার দরুন দেশে ধর্ষণ, হত্যা বেড়ে চলেছে অভিযোগ করে সমাবেশ থেকে তার পদত্যাগ দাবি করা হয়। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় বিক্ষোভ মিছিলটি ছাত্র ইউনিয়নের দলীয় টেন্ট থেকে শুরু হয়ে ক্যাম্পাসের প্রধান প্রধান সড়ক ও ভবন প্রদক্ষিণ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের টুকিটাকি চত্বরে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সাইদুজ্জান সুহান বলেন, স্বারষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বে অবহেলার দরুন আজ সারদেশে নারী নির্যাতন ব্যপক মাত্রায় ছড়িয়ে পড়েছে। সেনানিবাসের মতো একটি নিরাপত্তা বেষ্টিত স্থানে এরূপ ধর্ষণ এবং হত্যার মত ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেন বক্তারা। এছাড়াও পহেলা বৈশাখে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় টিএসসিতে নারী নিপীড়নের ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করতে না পারায় এবং দেশে ধর্ষণ, খুন, নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে না পারায় সমাবেশ থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানানো হয়। এরআগে সকাল ১১টায় তনু হত্যার বিচারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষাথীরা। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, দেশে বিচারহীনতার সংস্কৃতির কারণে দিন দিন ধর্ষণ, হত্যার মত ঘটনাগুলো বেড়েই চলেছে। পুরুষ জাতি নিরাপদ হলেও নারীরা আজ সমগ্র দেশে অনিরাপদ। মানববন্ধন থেকে তনুর হত্যাকরীদের সনাক্ত করে দ্রুত দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন। মার্কেটিং বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী প্রসেনজিৎ কুমারের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য দেন, রাবি ইংরেজি বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী শাম্মী, লোক প্রশাসন বিভাগের ৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী কাকলী সিদ্দিকী, আইন বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী ফারুক ইমন ও ইংরেজি বিভাগের ৩য় বর্ষের শিক্ষার্থী তমাশ্রী দাস প্রমুখ। জড়িতদের গ্রেফতার দাবিতে মানববন্ধন হয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়েও। আজ বৃহস্পতিবার সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে মানববন্ধন করেন। এসময় বক্তারা দ্রুত জড়িতদের গ্রেফতার করে বিচারের আওতায় আনার দাবি জানান।

তনুর নির্মম হত্যাকণ্ডের প্রতিবাদে এবং হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করেছে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজের শিক্ষার্থীরা।

আজ দুপুর ১টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীরা এ মানববন্ধন করেন।

এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে হত্যাকারীদের শাস্তি চেয়ে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড দেখা যায়। মানববন্ধনে অংশ নিয়ে সিওমেক এর চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, ‘এমন একটি নির্মম হত্যাকণ্ডের ৩দিন পার হয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত পুলিশ হত্যাকারীদের শনাক্ত এবং গ্রেফতার করতে সক্ষম হননি। ক্যান্টনমেন্ট এলাকার মতো নিরাপত্তা বেষ্টিত এলাকায় যদি এধরণের নৃশংসহত্যাকাণ্ড ঘটে, তাহলে আমরা পুরোপুরি অনিরাপদ। আমরা ভীতসন্ত্রস্ত। আমরা এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। আমরা জনসাধারণের নিরাপত্তা চাই।’

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী আরেক শিক্ষার্থী তাসনিয়া আহমেদ বলেন, ‘তনু আমারই বোন। আমারই বান্ধবী। আজ এক তনু মরেছে কাল আরেক তনু মরবে। এভাবে আর কতদিন! আমরা হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি চাই।” এরপর শিক্ষার্থীরা দীর্ঘক্ষণ দাড়িয়ে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। তাদের একটাই দাবি হত্যাকারীদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার এবং সর্বোচ্চ শাস্তি।

তনুর হত্যাকারীদের কঠিন শাস্তির দাবি বিএনপির

কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া সরকারি কলেজের ইতিহাস দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী নাট্যকর্মী সোহাগী জাহান তনুর হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে কঠিন শাস্তির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

বৃহস্পতিবার (২৪ মার্চ) বেলা ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ এ দাবি জানান।

রিজভী আহমেদ নিহত তনুর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করে শোক-সন্তপ্ত পরিবারবর্গের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপির শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ দফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, আসাদুল করিম শাহীন, স্বেচ্ছাসেবক দলের দপ্তর সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বাচ্চু প্রমুখ।

গত ২০ মার্চ বিকেলে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ছাত্রী সোহাগী জাহান তনু (২০) বাসার কাছে টিউশনি করতে বের হন। এর পর তিনি নিখোঁজ হন। পরের দিন সোমবার সকালে কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত সোহাগী ওই কলেজের থিয়েটারের কর্মীও ছিলেন। তার বাবা মো. ইয়ার হোসাইন কুমিল্লা ক্যান্টনমেন্ট বোর্ডের কর্মচারী ছিলেন।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *