ঠাণ্ডা পানি বা আইসক্রিম থেকে মাথায় যা ঘটে

ঠাণ্ডা পানি বা আইসক্রিম থেকে মাথায় যা ঘটে জেনে নিন।

ঠাণ্ডা পানি বা আইসক্রিম অনেকেরই খুব পছন্দ। কিন্তু প্রিয় পানীয় বা খাবারের ব্যাপারে কিছুটা সতর্ক না হলে শুধু মাথা ব্যথা নয়, মস্তিষ্কে রক্তপাত পর্যন্ত হতে পারে। এমনটাই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

ঠাণ্ডা পানি বা আইসক্রিম থেকে মাথায় যা ঘটে জেনে নিন।

ব্রেন ফ্রিজ
প্রচণ্ড গরমে ঠান্ডা পানি কিংবা আইসক্রিম খাওয়ার সময় এক ধরণের তৃপ্তি পাওয়া স্বাভাবিক। তবে অনেকের কিন্তু অতিরিক্ত ঠান্ডা খাওয়ার ফলে হঠাৎ করে মাথায় হালকা ছুরির আঘাতের মতো খোঁচা অনুভূত হয়ে মাথা ব্যথা শুরু হয়। ডাক্তারি ভাষায় যাকে বলা হয় ‘ব্রেনফ্রিজ’৷

কেন হয়?
বরফ ঠান্ডা পানি বা খাবার যদি খুব তাড়াতাড়ি খাওয়া হয় এবং সে খাবার যদি মুখের তালুতে বেশিক্ষণ লেগে থাকে, তাহলে ‘ব্রেনফ্রিজ’ বা এই অন্য ধরনের মাথা ব্যথা হতে পারে। তথ্যটি জানা গেছে আন্তর্জাতিক গবেষক দলের করা এক সমীক্ষা থেকে। গবেষণাটি ২০১২ সালে আমেরিকায় করা হয়েছে।

সাবধানতা
বরফঠান্ডা পানি বা আইসক্রিম মুখের তালুতে লাগার সাথে সাথেই অনেকের ক্ষেত্রে মস্তিষ্ক তা জানিয়ে দেয়। তাই সে মুহূর্তেই ঠান্ডা খাওয়া বন্ধ করা উচিত বলে বিশেষজ্ঞরা জানান।

মস্তিষ্কে রক্তপাত
মানুষের শরীরের অতি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ মস্তিষ্ক। আর এই মস্তিষ্ক অতিরিক্ত ঠান্ডা হলে, হৃৎপিণ্ড মস্তিষ্কে অনেক বেশি গরম রক্ত পাম্প করে। ফলে মস্তিষ্কে অতিরিক্ত রক্ত জমে যায়। বাড়তি রক্ত অন্য কোথাও প্রবাহিত হতে না পারার কারণে অনেক সময় মস্তিষ্কের ভেতরে ‘রক্তপাত’ হতে পারে।

গবেষণায় যা দেখা গেছে
অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে যাঁরা স্বাভবিক তাপমাত্রার পানীয় পান করেছেন, তাঁদের চেয়ে, যাঁরা বরফ শীতল পানি পান করেছেন, তাঁদের মস্তিষ্কে পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেছে। এ কথা জানান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের হাভার্ড মেডিকেল স্কুলের নিউরোলজিস্ট ও গবেষক ডা. জর্জ সেরাডর।

সাবধান
‘ব্রেন ফ্রিজ’ থেকে দূরে থাকতে চাইলে অতিরিক্ত ঠান্ডা পানীয় বা আইসক্রিম খেতে কখনো তাড়াহুড়ো করা উচিত নয়। বরং পানীয় বা খাবার ধীরে ধীরে উপভোগ করারই পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *