Afghanistan-and-Ireland-awarded-Test-match-status

টেস্ট স্ট্যাটাস পেল আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ড

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডকে টেস্টে স্ট্যাটাসের মর্যাদা দিয়েছে। ফলে টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া দেশের সংখ্যা দাঁড়ালো ১২টি।

ক্রিকেটের মর্যাদাপূর্ণ এ টেস্ট স্ট্যাটাস পাওয়া একাদশ ও দ্বাদশ সদস্য হলো আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ড।

বৃহস্পতিবার লন্ডনে আইসিসির বার্ষিক সভায় সর্বসম্মতিক্রমে তাদের টেস্ট স্ট্যাটাস দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়।

সবশেষ ২০০০ সালের ২৬ জুন দশম দল হিসেবে আইসিসির পূর্ণাঙ্গ সদস্যের মর্যাদা পেয়েছিল বাংলাদেশ। আইসিসির টেস্ট মর্যাদাপ্রাপ্ত অন্য দলগুলো হলো- ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ড, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও জিম্বাবুয়ে।

১৯৮২ সাল পর্যন্ত টেস্ট খেলুড়ে দেশ ছিল মাত্র সাতটি। ওই বছরই টেস্ট খেলার স্বীকৃতি পায় শ্রীলংকা। এর দশ বছর পর ১৯৯২ সালে পূর্ণ সদস্যপদ পায় জিম্বাবুয়ে। এর আট বছর পর ২০০০ সালে টেস্ট খেলার মর্যাদা পায় বাংলাদেশ।

আফগানিস্তান ২০১১ সালে ওয়ানডে স্ট্যাটাস পাওয়ার মধ্য দিয়ে সেরাদের তালিকায় ওঠে আসার পথ করে। দুই বছর পর যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশটি আইসিসির সহযোগী সদস্যপদ লাভ করে। ২০১৫ সালে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলে আফগানিস্তান। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও খেলেছে তারা। এরপর টেস্ট খেলুড়ে দেশ জিম্বাবুয়েকে ওয়ানডে সিরিজে ৩-২ ব্যবধানে হারিয়ে চমক সৃষ্টি করে আফগানরা। পরে টি-২০ সিরিজেও জিম্বাবুয়েকে হোয়াইট ওয়াশও করে নতুন ইতিহাস তৈরি করে মোহাম্মদ নবীরা।

২০০৫ সালে ওয়ানডে মর্যাদা পায় আয়ারল্যান্ড। সীমিত ওভারের ক্রিকেটে দেশটি বড় দলগুলোর বিপক্ষে বেশ কটি অঘটনের জন্ম দিয়েছে। বিশেষ করে ২০০৭ বিশ্বকাপে পাকিস্তানকে হারিয়ে বড় অঘটনের জন্ম দিয়ে সুপার এইটে খেলা। খেলেছে ২০১১ ও ২০১৫ বিশ্বকাপেও।

এর আগে এই দুটি দেশের ক্রিকেট বোর্ড সহযোগী সদস্য থেকে পূর্ণাঙ্গ সদস্য হওয়ার জন্য আইসিসির কাছে আবেদন করে। পরে তাদের এই আবেদন আইসিসির বোর্ড সভায় বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় গৃহীত হয়।

বেশ ক’বছর ধরেই আইসিসির কাছে দেশ দুটি টেস্ট মর্যাদা চেয়ে আবেদন করে আসছিল। শোনা যাচ্ছিল এবার তাদের আবেদন পাশ হতে পারে। এবং শেষ পর্যন্ত সেটিই সত্য হল।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *