আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ের জার্সিতে শেষ ম্যাচ খেলে ফেলেছেন ব্রেন্ডন টেলর। বিদায়ী ওয়ানডেতে শতক করে ক্রিকেট বিশ্বে স্মরণীয় থাকলেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক।
খেলা

জিম্বাবুয়ের জার্সিতে টেলরের স্মরণীয় বিদায়

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে জিম্বাবুয়ের জার্সিতে শেষ ম্যাচটি খেলে ফেলেছেন ব্রেন্ডন টেলর। বিদায়ী ওয়ানডেতে শতক করে ক্রিকেট বিশ্বে স্মরণীয় হয়ে থাকলেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক।

শুধু তাই নয়, ইতিহাসের নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্বকাপে টানা দ্বিতীয় সেঞ্চুরি কীর্তি গড়েছেন তিনি। আর ইতিহাসের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্যারিয়ারের শেষ দু’টি ম্যাচে সেঞ্চুরি করার গৌরবও অর্জন করেছেন তিনি।
বিশ্বকাপে গ্রুপের শেষ খেলায় ভারতের বিরুদ্ধে অসাধারণ ব্যাটিং করে ১৩৮ রানের চোখধাঁধানো ইনিংস খেলেন তিনি। মাত্র ১১০ বলে খেলা ইনিংসে ছিল ১৫টি চার ও পাঁচটি ছক্কা।

৩৩ রানে তিন উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা জিম্বাবুয়ে দলকে একাই টেনে তোলেন তিনি। আর এই সেঞ্চুরির পথে জিম্বাবুয়ের হয়ে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির মালিক বনে যান জিম্বাবুয়ে ক্রিকেটে জীবন্ত কিংবদন্তি হয়ে থাকা টেলর।

আজকের খেলার মধ্যে দিয়ে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটের সঙ্গে ১১ বছরের সম্পর্কের ইতি টানছেন টেলর। আফ্রিকান দেশটির জার্সিতে এটিই ছিল টেলরের শেষ ম্যাচ।

কারণ ইংলিশ কাউন্টি দল নটিংহ্যাম্পশায়ারের সঙ্গে তিন বছরের জন্য ‘কলপ্যাক’ চুক্তি করেছেন এই কৃতী উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান। আইনানুযায়ী তাই জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আর কোনো ম্যাচ খেলতে পারবেন না তিনি।

২০০৪ সালের এপ্রিলে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে জিম্বাবুয়ের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে টেলরের।

১৬৭ ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ৩৪.৮২ গড়ে ৫,২৫৮ রান করে ওয়ানডে থেকে বিদায় নিলেন তিনি। এর মধ্যে ছিল ৮টি সেঞ্চুরি ও ৩২টি হাফসেঞ্চুরি।

এছাড়া ২৩টি টেস্ট ম্যাচে ৩৪.৭২ গড়ে করেছেন ১,৪৯৩ রান। এর মধ্যে রয়েছে ৪টি সেঞ্চুরি এবং ৭টি হাফসেঞ্চুরি।

চলতি বিশ্বকাপ আসরে ৬ ম্যাচে ৪৩৩ রান নিয়ে সেরা পাঁচ ব্যাটসম্যানদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন তিনি।

দুঃসময়ে অধিনায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটকে সামনে টেনে নিতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন ব্রেন্ডন টেলর।

দীর্ঘ সম্পর্কের ইতি টেনে ইংলিশ কাউন্টি ক্রিকেটে যোগ দেওয়ার বিষয়ে ২৯ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার বলেছেন, ‘এতদিনের সম্পর্ক ছেদ করতে গিয়ে বুকের ভেতর তীব্র ব্যথা অনুভব করছি। কিন্তু বাস্তবতা আর জীবনের প্রয়োজনে অনেক কঠিন সিদ্ধান্তই নিতে হয় মানুষকে। আমিও তেমন কঠিন একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছি।

তবে ১১ বছরের ক্রিকেট সম্পর্কে ছেদ পড়লেও আমার অন্তর সব সময় আমার সতীর্থ আর দেশের পাশেই থাকবে। এত বছর ধরে আমাকে সমর্থন জানানোর জন্য সবাইকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ।’

এদিকে টেলরের বিদায় নেওয়াটা জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটে শূন্যতা সৃষ্টি করবে, এ সত্য স্বীকার করে দলটির বর্তমান কোচ ডেভ হোয়াটমোর বলেছেন, ‘নটিংহ্যাম্পশায়ার ভাগ্যবান যে তারা এমন একজন ক্রিকেটারকে দলে পেয়েছে।’

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *