বরগুনায় চুরির অভিযোগে চোখ উপড়ে শিশু হত্যা

বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নে মাছ চুরির অভিযোগে ১০ বছরের এক শিশুর চোখ উপড়ে শাবল দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নে মাছ চুরির অভিযোগে ১০ বছরের এক শিশুর চোখ উপড়ে শাবল দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।বরগুনার তালতলী উপজেলার সোনাকাটা ইউনিয়নে মাছ চুরির অভিযোগে ১০ বছরের এক শিশুর চোখ উপড়ে শাবল দিয়ে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহত শিশুর নাম রবিউল আউয়াল। রবিউল স্থানীয় একটি মাদ্রাসার চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

এ ঘটনায় মিরাজ নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

রবিউলের বাবা দুলাল মৃধা জানান, “তাদের বাড়ির পাশের লুতরার খালে জাল পেতে মাছ ধরত প্রতিবেশী মিরাজ। দুই দিন আগে মিরাজ তাদের হুমকি দেয় যে, তার জালের মাছ কে বা কারা ধরে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় রবিউলকে সন্দেহ করে মিরাজ। ভবিষ্যতে যদি রবিউল একই কাজ করে তবে তাকে দেখিয়ে দেবে বলে হুমকি দেয় মিরাজ। ”

এ ঘটনার পর মঙ্গলবার বিকেলে সোহাগ নামের স্থানীয় অপর এক কিশোর আমখোলা গ্রামের খাল পারে রবিউলের লাশ পড়ে থাকতে দেখে তার স্বজনদের খবর দেয়।

বুধবার সকালে রবিউলের বাবার উপস্থিতিতে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে মর্গে পাঠায় পুলিশ।

ঘটনার পর থেকে সন্দেহভাজন মিরাজ পলাতক ছিল বলে জানিয়েছে রবিউলের স্বজনরা।

বরগুনার পুলিশ সুপার বিজয় বসাক পিপিএম বলেন, “মঙ্গলবার বিকেলে রবিউলের লাশ উদ্ধার করে বুধবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।”

বিষয়টি অত্যন্ত বেদনাদায়ক উল্লেখ করে তিনি বলেন, “সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *