চুল পড়ার ১০ কারণ ও প্রতিকারের উপায়

চুল পড়ার ১০ কারণ ও প্রতিকারের উপায়

1086
0
SHARE

চুল নিয়ে আজকাল অনেকেরই ভাবনার অন্ত নেই। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল সুন্দর চুল সবারই কাম্য। কিন্তু মাথার চুল যদি পাতলা হয়ে যায় বা পড়তে থাকে তাহলে চিন্তার শেষ থাকে না।চুল নিয়ে আজকাল অনেকেরই ভাবনার অন্ত নেই। স্বাস্থ্যোজ্জ্বল সুন্দর চুল সবারই কাম্য। কিন্তু মাথার চুল যদি পাতলা হয়ে যায় বা পড়তে থাকে তাহলে চিন্তার শেষ থাকে না।

চুল পড়া বন্ধ করতে অনেকেই চুলে দামী শ্যাম্পু ব্যবহার করেন, পার্লারে ট্রিটমেন্ট নেন, যত নিয়ম আছে সব মেনে চলেন। এত কিছুর পরও যখন চুল পড়ে তখন অনেক সময় এর কোনো কারণই খুজে পান না তারা।

কিন্তু আপনি কি জানেন কিছু ভুল লুকিয়ে আছে আপনারই গোসল করা বা চুল ধোয়ার পদ্ধতির মধ্যে। যার ফলে সবাইকেই এই সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। মেয়েদের চুল পড়ার একটি বড় কারণ হচ্ছে এই ভুলগুলো। কিন্তু এই ভুলগুলো শুধরে নিতে পারলে সহজেই এই সমস্যার সমাধান করা যায়। আসুন তাহলে জেনে নিন সেই ১০টি ভুল যা কম বেশি সবাই করে থাকেন।

সবচাইতে বড় ভুলটি হচ্ছে প্রতিদিন চুল ধোয়া। প্রতিদিন গোসল করা অবশ্যই জরুরী। কিন্তু প্রতিদিনই চুল ধোয়া জরুরী নয়। দৈনিক কতটা সময় বাইরে থাকেন সেটার ওপরে নির্ভর করে চুল ধুতে হবে। চুলে ময়লা না জমলে নিয়মিত চুলে পানি না লাগানোই ভাল। বিশেষ করে যাদের লম্বা ও ঘন চুল তারা এটা একেবারেই করবেন না। কারণ এধরণের চুল শুকাতে অনেক সময় লাগে। ফলে চুলের গোড়া ভিজা থাকে আর চুল দুর্বল হয়ে যায়।

যদি প্রতিদিনই ২/৩ বার গোসলের অভ্যাস থাকে তবে প্রতিবারই চুল ভেজাবেন না। এটা চুলের জন্য খারাপ।

যত ভালো শ্যাম্পুই হোক না কেন প্রতিদিন ব্যবহার করবেন না।

প্রতিবার শ্যাম্পু করার সময় কন্ডিশনার ব্যবহার করবেন না। অনেকেই মনে করে কন্ডিশনার লাগালে চুল ভালো থাকে। এটি ভুল ধারণা। কন্ডিশনার লাগালে চুল ভালো থাকে না বরং সাময়িক একটা নরম ও উজ্জ্বলতা আসে। এতে থাকা রাসায়নিক চুলের জন্য মোটেও ভালো নয়। তাছাড়া নিয়মিত কন্ডিশনার ব্যবহার করলে চুল পড়ার হার বেড়ে যায় অনেক বেশী।

গোসলের পর পরই ভেজা চুল আচড়াবেন না। কারণ এ সময় চুল থাকে নরম ও ভঙ্গুর। এ সময়ে আঁচড়ালে চুল ভেঙে ও ঝরে যাওয়ার হার বেড়ে যায়।

শ্যাম্পু করার আগে মোটা দাঁতের চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ে নিন। এতে চুলে জট পড়বে না ফলে চুল ভাঙবে না ও ছিঁড়বে না।

তোয়ালে দিয়ে ঘষে ঘষে চুল মোছার অভ্যাস বাদ দিতে হবে। এই অভ্যাসের কারণে চুলের আগা ফেটে যায় ও প্রচুর চুল পড়ে।

গোসলের পর বেশিক্ষন মাথায় তোয়ালে পেঁচিয়ে রাখবেন না। এতে চুলের ওপরে চাপ পড়ে, চুল ভেঙে যায়। যত দ্রুত সম্ভব চুল শুকিয়ে ফেলুন।

চুল দ্রুত শুকাবার জন্য হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করে চুল শুকানোও ভুল অভ্যাস। কারণ বেশি গরমে চুলের মারাত্মক ক্ষতি হয়। ফ্যানের বাতাসের নিচে চুল শুকানোই ভালো।

১০

দুপুরে বা রাতে গোসলের পর চুল পুরোপুরি না শুকিয়েই ঘুমিয়ে পড়েন অনেকে ফলে চুলের গোঁড়া দুর্বল হয়ে যায়। এ কারণেও চুল পড়ে যায়।

Comments

comments