সরকার নাশকতার দায়ে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার না করলে জনগণই তাকে গ্রেফতার করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।
জাতীয়

খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের হুমকি নৌমন্ত্রীর

সরকার নাশকতার দায়ে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার না করলে জনগণই তাকে গ্রেফতার করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।সরকার নাশকতার দায়ে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার না করলে জনগণই তাকে গ্রেফতার করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠাবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান।

সোমবার খালেদার কার্যালয় ঘেরাওয়ের আগে শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় পরিষদের এক সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। গুলশানের সেন্ট্রাল পার্কে বেলা ১২টার দিকে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশ শেষে শাজাহান খানের নেতৃত্বে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কার্যালয় অভিমুখে রওয়ানা হন শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের নেতাকর্মীরা। এসময় পার্কের পাশে দুটি ককটেল বিস্ফোরিত হয়। বর্তমানে খালেদার কার্যালয়ের সামনের সড়কে সমন্বয় পরিষদের নেতাকর্মীদের নিয়ে সমাবেশ করছেন করছেন শাজাহান খান। সমাবেশ থেকে খালেদা জিয়াকে গ্রেফতারের দাবিতে বেশ কয়েকটি কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দেন নৌমন্ত্রী। শাজাহান খান বলেন, খালেদা জিয়া আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারছেন। মানুষ স্বাভাবিক কাজ করতে পারছে না। শ্রমিকদের আয় কমে গেছে। এরকম চলতে থাকলে সরকার যদি তাকে গ্রেফতার না করে তবে জনগণই তাকে গ্রেফতার করে কাশিমপুর কারাগারে পাঠাবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে খালেদা জিয়াকে হরতাল প্রত্যাহার করতে বাধ্য করা হবে বলে হুশিয়ারি দেন তিনি।

এর আগে হরতাল-অবরোধের প্রতিবাদে নৌ-পরিবহণমন্ত্রী শাজাহান খানের নেতৃত্বে  শ্রমিক-কর্মচারী-পেশাজীবী মুক্তিযোদ্ধা পরিষদের নেতাকর্মীরা বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কার্যালয় অভিমুখে রওয়ানা হলে  গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডের মাথায় পুলিশ ব্যাড়িকেট দিয়ে মিছিলটি আটকে দিয়েছে। সেখানে মিছিলকারীরা স্লোগান দিচ্ছেন।

সোয়া ১২টার দিকে গুলশান-২ নম্বরে মিছিলটি আসা মুহূর্তেই একটি হাতবোমা ছুঁড়ে মারা হয়। এতে একজনের পা উড়ে যায়। আহত হন আরো পাঁচজন। তবে তাদের নাম-পরিচয় এখনো জানা যায়নি।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে শ্রমিকরা বেশ কয়েকটি মোটরসাইকেল ও গাড়ি ভাঙচুর করে।

শাজাহান খান ছাড়াও কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিচ্ছেন মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কাউন্সিলের চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল অব. হেলাল মোর্শেদ খান, শ্রমিক নেত্রী শিরিন আকতার, শ্রমিক নেতা এনায়েত করিম, শ্রমিক নেতা ওসমান আলী প্রমুখ।

ঘেরাও কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে খালেদা জিয়ার কার্যালয়ের আশাপাশের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। গুলশানের ৮৬ নম্বর রোডের দুই পাশে অতিরিক্ত দাঙ্গা পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া ব্যারিকেড দিয়ে জনসাধারণ ও যানবাহন চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *