গ্রামীণফোনের ৬৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা

গ্রামীণফোনের পরিচালনা পর্ষদ ৬৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।
গ্রামীণফোনের পরিচালনা পর্ষদ ৬৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে।গ্রামীণফোনের পরিচালনা পর্ষদ ৬৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। তবে ২০১৪ সালের জন্য মধ্যবর্তীকালীন ৯৫ শতাংশসহ মোট ১৬০ শতাংশ। এরই মধ্যে মধ্যবর্তীকালীন লভ্যাংশ বিতরণ করা হয়ে গেছে।

পর্ষদ বৈঠকে বিদায়ী হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয়েছে।আলোচিত বছরে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৪ টাকা ৬৭ পয়সা।আর শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) ২৩ টাকা ২৩ পয়সা।

আগামী ২১ এপ্রিল কোম্পানির বার্ষিক সাধারণ সভা (এজিএম) অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য রেকর্ড তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ১৮ ফেব্রুয়ারি।

ইপিএস বেড়েছে প্রায় ৩৫ শতাংশ

গ্রামীনফোনের সর্বশেষ অর্থবছরে শেয়ার প্রতি আয় বা ইপিএস বেড়েছে। ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ অর্থবছরে এই কোম্পানির ইপিএস বেড়েছে প্রায় ৩৫ শতাংশ। কোম্পানি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

গতকাল রোববার গ্রামীনফোনের পর্ষদ বৈঠকে বিদায়ী হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুমোদন করা হয় ।

জানা গেছে, আলোচ্য বছরে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১৪ টাকা ৬৭ পয়সা। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটি আয় করেছিল ১০ টাকা ৮৯ পয়সা।

সর্বশেষ হিসাব বছরে কোম্পানির মুনাফার পরিমানও বেড়েছে। কোম্পানিটি কর পরিশোধের পর মুনাফা করেছে ১ হাজার ৯৮০ কোটি ৩২ লাখ  টাকা; যা আগের বছরের তুলনায় ৫১০ কোটি ১৭ লাখ টাকা বা ৩৫ শতাংশ বেশি। আগের বছর একই সময়ে কোম্পানিটি মুনাফা করেছিল এক হাজার ৪৭০ কোটি টাকা।

আলোচ্য বছরে গ্রামীণফোন শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভি) করেছে ২৩ টাকা ২৩ পয়সা। ২০১৩ সালে এই কোম্পানির এনএভি ছিল ২৩ টাকা ৬ পয়সা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *