পুলিশী বাধায় রাতে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খালেদা জিয়া।
জাতীয়

গুলশান কার্যালয়ে অবস্থান করবেন খালেদা জিয়া

পুলিশী বাধায় রাতে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খালেদা জিয়া।পুলিশী বাধায় রাতে চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন খালেদা জিয়া। পুলিশি প্রহরায় বাসভবনে না গিয়ে গুলশান কার্যালয়েই তিনি রাতে অবস্থান করবেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী সেলিমা রহমান।

শনিবার রাত ২টার দিকে বিএনপি চেয়ারপাসনের গুলশান কার্যালয়ের ভেতরে সেলিমা রহমান এ তথ্য জানান।

বিএনপি মহিলা দলের নেত্রী সাবেক সংসদ সদস্য সৈয়দা আসিফা আশরাফী পাপিয়া এ সময় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে বলেন, ‘শেখ হাসিনা অবৈধ প্রধানমন্ত্রী। তিনি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে পুলিশ দিয়ে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন। এটা কি ধরণের গণতন্ত্র?’

তিনি বলেন, ‘আমরা জানি না, কতদিন খালেদা জিয়াকে অবরুদ্ধ করে রাখা হবে? এটা কি ৫ জানুয়ারি না ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত, আমরা জানি না।’

এদিকে, রাত পৌনে দুইটার দিকে খালেদা জিয়ার গুলশানের বাসা থেকে তার গৃহকর্মী বেশ কিছু ব্যবহারের ব্যক্তিগত কাপড়-চোপড় ও অন্যান্য সরঞ্জামসহ গুলশান কার্যালয়ে আসেন। এ সময় একটি ছোট সাইজের ট্রাকে করেও কিছু সরঞ্জাম আনা হয়।

মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা জানান, ট্রাকে করে জেনারেটর আনা হয়েছে। এছাড়া রয়েছে অন্যান্য কিছু সরঞ্জাম।

এর আগে বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস সাংবাদিকদের বলেন, দেশের গণতন্ত্রের পুনরুদ্ধারের জন্য ২০ দলীয় জোট যে কালোপতাকা কর্মসূচি ঘোষণা করেছে তা অব্যাহত থাকবে। খালেদা জিয়া এ কর্মসূচি চালিয়ে যেতে দলীয় নেতাকর্মী ও দেশবাসীর কাছে আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, শনিবার রাত পৌনে ১২টার দিকে গুলশান কার্যালয় হতে বের হতে বাধার সম্মুখীন হন ২০ দলীয় জোট নেত্রী। ৩০ মিনিট গাড়িতে অপেক্ষা করার পর তিনি গাড়ি থেকে নেমে আবারও কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। তাকে অবরোধ করা হয়েছে।

রাত সোয়া একটার দিকে খালেদা জিয়ার বাসার বুয়া গুলশান কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। এ সময় ওই কার্যালয়ে সাবেক মন্ত্রী সেলিমা রহমান, মহিলা দলের সভানেত্রী নুরে আরা সাফা, সাধারণ সম্পাদক শিরিন সুলতানা, সাবেক এমপি আসিফা পাপিয়া, সুলতানা ইয়াসমিনসহ মহিলা দলের নেত্রীরা অবস্থান করছেন।

বিএনপি সূত্র জানায়, খালেদা জিয়া যদি বাসায় যেতে চান তবে তাকে পুলিশি পাহারায় তাকে বাসায় পৌঁছে দেওয়া হবে। তবে ৫ জানুয়ারি তিনি বের হতে পরবেন না বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

তাই খালেদা জিয়া গুলশান কার্যালয়ে অবস্থানের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *