গরুর মাংস রপ্তানিতে শীর্ষে ভারত
আন্তর্জাতিক

গরুর মাংস রপ্তানিতে শীর্ষে ভারত

গরুর মাংস রপ্তানিতে শীর্ষে ভারতবাংলাদেশিদের গরুর মাংস খাওয়া বন্ধে ভারতের হিন্দু মৌলবাদী বিজেপি সরকার ক্রুসেড ঘোষণা করলেও ভারতই এখন বিশ্বের শীর্ষ গরুর মাংস রপ্তানিকারক দেশ।

যুক্তরাষ্ট্রের কৃষি বিভাগের (ইউএসডিএ) সর্বশেষ প্রতিবেদন অনুসারে, ব্রাজিলকে হটিয়ে বিশ্বের শীর্ষ গরুর মাংস রপ্তানিকারক দেশ এখন ভারত।

ভারতের অনেক হিন্দু গরু হত্যা পাপ মনে করে। তাই বিজেপি সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর ভারতে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হচ্ছে গরু নিয়ে। এরই মধ্যে দেশটির একটি প্রদেশে গরু জবাইয়ের ওপর নিষেধাজ্ঞার খড়্গ নামানো হয়েছে, অন্যগুলোর জন্যও চিন্তাভাবনা চলছে।

সম্প্রতি ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেছেন, ভারত থেকে বাংলাদেশে গরু পাচার পুরোপুরি বন্ধ করে দিতে হবে যাতে বাংলাদেশের মানুষ গরুর মাংস খাওয়া বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, তেল রাজস্ব কমায় ও মুদ্রার দুর্বলতার কারণে রাশিয়াসহ তেলনির্ভর বেশ কয়েকটি দেশে গরুর মাংস আমদানি কমেছে। তবে ভারত থেকে রপ্তানি সবচেয়ে বেশি বেড়েছে।

অন্যদিকে ব্রাজিল, উরুগুয়ে ও যুক্তরাষ্ট্র থেকে কমলেও ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও প্যারাগুয়ে থেকে রপ্তানি কিছুটা বেড়েছে। রাশিয়ার বাজার ভারতের গরুর মাংসের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে। এতে চলতি অর্থবছরে ভারতের এ পণ্য রপ্তানি বৃদ্ধির ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।

রাশিয়া ভারতের চারটি কোম্পানিকে মাংস সরবরাহের অনুমতি দিয়েছে এবং এরই মধ্যে প্রথম কিস্তির সরবরাহ পৌঁছে গেছে। চলতি বছর বিশ্বে গরুর মাংস রপ্তানি রেকর্ড ১০ দশমিক ২ মিলিয়ন টনে দাঁড়াবে বলে প্রতিবেদনে বলা হয়।

ভারতের এগ্রিকালচার অ্যান্ড প্রসেসড ফুড প্রডাক্টস এক্সপোর্ট ডেভেলপমেন্ট অথরিটির (এপিইডিএ) তথ্য অনুসারে, মূল্যের দিক থেকে কৃষি খাদ্য ক্যাটাগরিতে দেশটির সবচেয়ে বেশি রপ্তানি করা ভোগ্যপণ্য হিসেবে এরই মধ্যে বাসমতী চালকে হটিয়ে জায়গা করে নিয়েছে গরুর মাংস।

ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১১ মাসে ভারতের মোট গরুর মাংস রপ্তানি দাঁড়িয়েছে ১৩ লাখ ৫৬ হাজার ৭৯৪ টনে, যার মূল্য ২৬ হাজার ৯৬৫ কোটি রুপি। গত বছরের তুলনায় পরিমাণের দিক থেকে এ হার ১১ শতাংশ বেশি এবং মূল্যের দিক থেকে ১৩ শতাংশ বেশি।

মূল্যের দিক থেকে ১১ মাসের রপ্তানি এরই মধ্যে ২০১৪ অর্থবছরকে ছাড়িয়ে গেছে। ওই অর্থবছরে রপ্তানি মূল্য ছিল ২৬ হাজার ৪৫৮ কোটি রুপি (৩২,২৩৬ কোটি টাকা)। এ প্রবৃদ্ধির হার অনুযায়ী, ২০১৫ অর্থবছরে গো-মাংস রফতানি ৩০ হাজার কোটি রুপি ছুঁতে পারে। অন্যদিকে রফতানির পরিমাণ ১৫ লাখ টনে দাঁড়াতে পারে, আগের অর্থবছরে যা ছিল ১৪ লাখ ৪৯ হাজার ৭৫৯ টন।

অল ইন্ডিয়া মিট অ্যান্ড লাইভস্টক এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক ডিবি সাবহারওয়াল বলেন, ব্রাজিলে মুদ্রার অবমূল্যায়ন ও ভিয়েতনাম থেকে হংকংয়ে গরুর মাংস পুনরায় রপ্তানি নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা ভারতের রপ্তানিতে প্রভাব ফেলেছে। ভারতের গরুর মাংসের সবচেয়ে বড় ক্রেতা ভিয়েতনাম, আর ব্রাজিল দেশটির প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী।

সম্প্রতি মহারাষ্ট্রে গরু জবাই নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

রাশিয়ার মতো বড় বাজার ও মিশরের মতো অনেক দেশ আরো বেশি করে ভারতীয় মাংস কিনছে।

উত্তর প্রদেশ থেকে ভারতের সবচেয়ে বেশি গরুর মাংস রপ্তানি হয়।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *