সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. এটিএম শামসুল হুদা বলেন, দেশে গণতন্ত্রের নামে নির্বাচিত স্বৈরতন্ত্র চলছে।
জাতীয়

‘গণতন্ত্রের নামে দেশে চলছে নির্বাচিত স্বৈরতন্ত্র’

সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. এটিএম শামসুল হুদা বলেন, দেশে গণতন্ত্রের নামে নির্বাচিত স্বৈরতন্ত্র চলছে।তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ড. আকবর আলি খান বলেছেন, বর্তমানে দেশে অনুদার গণতন্ত্র বিরাজ করছে। বাংলাদেশে নির্বাচন হলেও গণতন্ত্র দুর্বল হয়ে যাচ্ছে। কারণ বর্তমান গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থায় অনেক ত্রুটি রয়েছে।

রাজধানীর ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে শনিবার দুপুরে সুশাসনের জন্য নাগরিকের (সুজন) পঞ্চম জাতীয় সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৫৩টি আসনে প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হয়েছেন। এ সব আসনের ভোটাররা ভোট দেওয়ার সুযোগ পাননি।

সাবেক এই উপদেষ্টা বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ব্যবস্থা থাকবে কি থাকবে না, এটা কোনো রাজনৈতিক দলের বিষয় নয়। এটা ভোটারদের বিষয়। গণভোটের মাধ্যমে ভোটাররাই সিদ্ধান্ত দিতে পারেন।

তিনি বলেন, গণভোটের ব্যবস্থা থাকলে হরতালের কোনো প্রয়োজন ছিল না।

আকবর আলি বলেন, গণতন্ত্র ও উন্নয়ন আলাদা কিছু নয়। তবে দিন দিন আমরা গণতন্ত্র থেকে দূরে সরে যাচ্ছি।

সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ড. এটিএম শামসুল হুদা বলেন, ২০১৪ সালের নির্বাচনে ফাঁকা মাঠে গোল দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচন বয়কট করে কখনও কোনো রাজনৈতিক দল লাভবান হয়নি বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

তিনি বলেন, যারা নির্বাচন বয়কট করেছিল তাদের উচিত ছিল নির্বাচন কমিশনে নিয়োগপ্রাপ্তরা যোগ্য কি-না। তারা কোন ব্যাকগ্রাউন্ড থেকে এসেছে এসব বিষয়ে আলোচনা করা। কিন্তু তারা সেটা করেনি। ফলে দেশে নির্বাচন হয়ে গেছে।

শামসুল হুদা বলেন, দেশে এখন গণতন্ত্রের নামে নির্বাচিত স্বৈরতন্ত্র চলছে।

বক্তব্যে পাকিস্তানের প্রশংসা করে শামসুল হুদা বলেন, আমাদের দেশের অনেকেই পাকিস্তানকে ব্যর্থ রাষ্ট্র হিসেবে দেখতে পছন্দ করি। কিন্তু সেখানের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো অনেক শক্তিশালী। বিশেষ করে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশনই ঠিক করে দেয় তাদের দেশে সুষ্ঠ নির্বাচন হওয়ার জন্য কে তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রধান হবে। সব রাজনৈতিক দল তাদের সিদ্ধান্ত মেনে নেয়।

তিনি আরও বলেন, আমরা কিন্তু পাকিস্তান থেকে আলাদা হয়েছিলাম তাদের চেয়ে ভাল থাকা বা করার জন্য। কিন্তু আমরা তা পারিনি। আমাদের দেশের সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো অনেক বিতর্কিত।

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশে সম্পর্কে সরকারের মন্তব্য প্রসঙ্গে শামসুল হুদা বলেন, টিআইবি’র প্রতিবেদনে দেশের যে চিত্র তুলে ধরা হয়েছে তা খুবই সামান্য। মূল চিত্র আরও অনেক ভয়াবহ।

উদ্বোধনী পর্বে সুজনের সঙ্গে সম্পৃক্ত নেতৃবৃন্দসহ যে সকল বরেণ্য ব্যক্তি মৃত্যুবরণ করেছেন, তাদের স্মরণে শোক প্রস্তাব উত্থাপন ও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর সাংগঠনিক প্রতিবেদন ও জাতীয় সনদ উপস্থাপন করেন সুজন সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার।

সুজনের সভাপতি এম হাফিজউদ্দিন খানের সভাপতিত্বে সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- ইন্টারন্যাশনাল চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আসিফ নজরুল, রোবায়েত ফেরদৌস, গণশিক্ষা আন্দোলনের অধ্যাপক আহসানুল হক, ইনাম আহমেদ চৌধুরী, অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমদ, সাংবাদিক আশরাফ কায়সার প্রমুখ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *