অস্ট্রেলিয়ার স্বশিক্ষিত খুদে জ্যোতির্বিদ

নিজের বানানো বেলুনের মাধ্যমে ক্যামেরা পাঠিয়ে মহাশূন্যের চিত্র ধারণ করেছে অস্ট্রেলিয়ার এক কিশোর।

নিজের বানানো বেলুনের মাধ্যমে ক্যামেরা পাঠিয়ে মহাশূন্যের চিত্র ধারণ করেছে অস্ট্রেলিয়ার এক কিশোর।নিজের বানানো বেলুনের মাধ্যমে ক্যামেরা পাঠিয়ে মহাশূন্যের চিত্র ধারণ করেছে অস্ট্রেলিয়ার এক কিশোর।

শৈশব থেকেই জ্যোতির্বিদ্যায় আগ্রহী এই কিশোরের রয়েছে নিজের তৈরী টেলিস্কোপও। প্রথম দফায় সফলতার পর আবারো শূণ্যে বেলুন পাঠাতে যাচ্ছে স্বশিক্ষিত এই খুদে জ্যোতির্বিদ।

বিস্ময় থেকে শুরু মহাকাশের প্রতি তীব্র আকর্ষণের। আর আকর্ষণ থেকে শেখার আগ্রহ। এরপর বইপত্র আর ইন্টারনেট ঘাঁটাঘাঁটি। মহাকাশে বেলুন পাঠানোর পেছনে অস্ট্রেলীয় কিশোর জোনাহ’র গল্পটা এমনই।

এর আগেই ব্যবহৃত সরঞ্জাম কাজে লাগিয়ে বানিয়ে ফেলেন একটি টেলিস্কোপ। যার সঙ্গে ক্যামেরা যুক্ত করে তোলা যায় ছবিও। তার এই ছবি প্রকাশিত হয়েছে মহাকাশ বিষয়ক একটি জার্নালে।

কিশোর জ্যোতির্বিদ জোনাহ  স্কট বলেন, মহাশূণ্যের অন্ধকারময়তা ও পৃথিবীর বক্রতার ছবি তুলতে চেয়েছি আমি। আপনারা বলতে পারেন, মহুশূন্য নিয়ে আমি খুবই আবিষ্ট হয়ে থাকি। এ বিষয়ে অনেক সময় ও শ্রম দিয়ে আনন্দ পাই।

বাবার ওয়ার্কশপে সাহায্য করতে করতেই পেয়েছেন প্রযুক্তিগত জ্ঞান। ছোটবেলা থেকেই অসীমের প্রতি ছেলের আকাঙ্খার কথা জানালেন তিনি।

জোনাহ’র বানানো বেলুনটি ৩৩ কিলোমিটার উচ্চতায় পৌছে ধারণ করেছে মহাকাশের চিত্র। চুপসে যাওয়ার পর যা মাটিতে নেমে আসতে সময় নিয়েছে প্রায় আধ ঘণ্টা। বর্তমানে আরেকটি বেলুন নিয়ে কাজ করছেন তিনি। আশা, আগের উচ্চতাকেও ছাড়িয়ে যাওয়ার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *