সংবিধান লঙ্ঘন করে ক্ষমতা দখল মৃত্যুদণ্ড জেনে কেউ ক্ষমতা দখল করতে আসবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
জাতীয়

‘কেউ ক্ষমতা দখল করতে আসবে না’

সংবিধান লঙ্ঘন করে ক্ষমতা দখল মৃত্যুদণ্ড জেনে কেউ ক্ষমতা দখল করতে আসবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।সংবিধান লঙ্ঘন করে ক্ষমতা দখল মৃত্যুদণ্ড জেনে কেউ ক্ষমতা দখল করতে আসবে না বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে রবিবার রাজধানীর খামার বাড়ির কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় দলের সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘সংবিধান লঙ্ঘন করে কেউ ক্ষমতা দখল করলে মৃত্যুদণ্ডের (ক্যাপিটাল পানিশমেন্ট) বিধান বর্তমান সংবিধানে আছে। এ কথা জেনে কেউ ক্ষমতা দখল করতে আসবে না।’

সামরিক বাহিনীর প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, ‘তারপরেও বেগম খালেদা জিয়া উত্তরপাড়ার দিকে তাকিয়ে আছেন যেন, তারা এসে উনাকে ক্ষমতায় বসাবেন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যাদের আশায় বসে আছেন, তারাও জানে এভাবে ক্ষমতায় এলে তার পরিণতি কী হয়। জিয়া, এরশাদ, মইনুদ্দীন আর ফখরুদ্দীনের পরিণতি সবাই দেখেছে। ওই আগুনে কেউ পা দিতে আসবে বলে আমি বিশ্বাস করি না।’

বিদেশিরাও বিএনপির সাহায্যে এগিয়ে আসবে না দাবি করে তিনি বলেন, গণতন্ত্রের নামে বিএনপি হত্যাযজ্ঞে নেমেছে। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরিও এ সব হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে বলেছেন।

হরতাল-অবরোধের সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘উনার (খালেদা জিয়া) হরতাল-অবরোধ কে মানছে? উনি ভয় দেখিয়ে হরতাল-অবরোধ করতে চান। কিন্তু যারা পেট্রোল বোমা দিয়ে মানুষকে পুড়িয়ে মারছে, দেশের মাটিতে তাদের বিচার একদিন হবেই।’

প্রধানমন্ত্রী রাজনৈতিক সংকট সমাধানে সংলাপ ও সমঝোতার লক্ষ্যে নাগরিক সমাজের উদ্যোগের সমালোচনা করে বলেন, ‘সুশীল সমাজের ১৩ জনের একটি তালিকা দেখলাম। জানি না, এই সুশীলের সংজ্ঞা কী। আমরা আগেরবার (৯৬ সালে) যখন ক্ষমতায় ছিলাম, তখন এঁদের কেউ কেউ সচিব ছিলেন। অনেকে পদ-পদবির জন্য, পদোন্নতির জন্য তদবিরও করেছেন। কিছুদিনের জন্য হলেও কেবিনেট সেক্রেটারি হতে চেয়েছেন। সরকারি চাকরি শেষ হলেই তাঁরা সুশীল হয়ে যান। তাঁদের কাছ থেকে এখন আমাদের ছবক নিতে হবে। তবে মানুষ সচেতন। কেউ তাদের বিভ্রান্ত করতে পারবে না।’ তিনি বলেন, ‘সুদখোর, ঘুষখোর ও চাটুকারদের দিয়ে এ দেশের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে না। একমাত্র আওয়ামী লীগই পারে মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করতে। কারণ, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে দেশ স্বাধীন হয়েছে। তাই আমরা করি মনের টানে।’

আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, মতিয়া চৌধুরী, সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, শেখ ফজলুল করিম সেলিম, কথাসাহিত্যিক রাহাত খান, এম এ আজিজ, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, কামরুল ইসলাম প্রমুখ।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *