নির্বাচন কমিশনে কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ
জাতীয়

নির্বাচন কমিশনে কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ

নির্বাচন কমিশনে কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতী) আসনের উপনির্বাচনে মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ করে দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

একই সঙ্গে তার স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকীর আপিলও খারিজ করা হয়েছে। তবে তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যেতে পারবেন।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের জনসংযোগ পরিচালক এস এম আসাদুজ্জামান রোববার বিকেল সাড়ে ৫টায় এ রায় নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে করা আপিল খারিজ করে দিয়েছে।’

এদিকে রায়ের প্রতিক্রিয়ায় কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, তিনি নির্বাচন কমিশনের রায়ে ন্যায় বিচার পাননি। নির্বাচন কমিশনের এমন রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিলের সিদ্ধান্তও নিয়েছেন তিনি।

রায়ের প্রতিক্রিয়ায় বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেন, ‘আমরা ন্যায় বিচার থেকে বঞ্চিত হয়েছি। নির্বাচান কমিশনের এই রায়ের বিরুদ্ধে আমরা অবশ্যই উচ্চ আদালতে যাব।’

এর আগে, রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে রোববার সকাল ১১টায় শুরু হয়ে প্রায় এক ঘণ্টা ধরে কাদের সিদ্দিকী ও নাসরিন সিদ্দিকীর আপিলের শুনানি হয়। শুনানি শেষে বিকেল ৫টায় রায় ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

শুনানিতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ, নির্বাচন কমিশনার মো. শাহনেওয়াজ, আবু হাফিজ, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) মো. জাবেদ আলী, মো. আবদুল মোবারক, ইসি সচিব মো. সিরাজুল ইসলাম, ইসির অতিরিক্ত সচিব মোকলেসুর রহমান, উপ-সচিব মো. মহসিনুল হক ছাড়াও অন্যান্য শাখার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শুনানিতে কাদের সিদ্দিকী ও নাসরিন সিদ্দিকী অংশ নেন। তাদের সহায়তা করেন অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম ও মাহবুব হাসান রানা। এ সময় তাদের সঙ্গে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন।

শুক্রবার দুপুরে নির্বাচন কমিশনে কাদের সিদ্দিকী ও নাসরিন সিদ্দিকীর পক্ষে মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে আপিল করেন ইকবাল সিদ্দিকী।

আপিলের সঙ্গে অগ্রণী ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালককে দেওয়া বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি কারণ দর্শানোর নোটিশও সংযুক্ত করা হয়েছে। ওই নোটিশে কেন কাদের সিদ্দিকীর নাম ঋণখেলাপিদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হলো, তা জানতে চাওয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপনির্বাচনে কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন কাদের সিদ্দিকীসহ চারজনের মনোনয়নপত্র বাতিল করে নির্বাচন কমিশন।

উপনির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. আলীমুজ্জামান জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো (সিআইবি) নির্বাচন কমিশনে জানিয়েছে, কাদের সিদ্দিকীর প্রতিষ্ঠান সোনার বাংলা প্রকৌশলী সংস্থার নামে অগ্রণী ব্যাংকের ১০ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। কাদের সিদ্দিকী এই প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান এবং নাসরিন কাদের সিদ্দিকী পরিচালক। ওই ঋণখেলাপি হওয়ায় তাদের দু’জনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

এদিকে, মনোনয়নপত্রের সঙ্গে দলীয় মনোনয়নের চিঠি না দেওয়ায় জাতীয় পার্টির (এরশাদ) প্রার্থী সৈয়দ মোস্তাক হোসেনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। ১ শতাংশ ভোটারের সমর্থন যথাযথভাবে না থাকায় বাতিল করা হয় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল আলীমের মনোনয়নপত্র।

ওই নির্বাচনে জমা পড়া মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই শেষে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের ইকবাল সিদ্দিকী ও হাসমত আলী, জাতীয় পার্টির (মঞ্জু) সাদেক সিদ্দিকী, বিএনএফের আতাউর রহমান খান এবং এনপিপির ইমরুল কায়েসের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়।

আগামী ১০ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৪ আসনের এই উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *