কফি নিয়ে প্রচলিত ৫টি ভুল ধারণা

কফি নিয়ে প্রচলিত ৫টি ভুল ধারণা

কফি হৃদযন্ত্রের ক্ষতি করে, ব্লাডপ্রেশার বাড়িয়ে দেয় কিংবা ক্যানসার বাঁধায় – এ রকম কিছু ধারণা প্রচলিত রয়েছে। তবে গবেষণায় জানা গেছে, কফি স্বাস্থ্যের জন্য খারাপ তো নয়ই বরং উপকারী।

জেনে নিন কফি নিয়ে প্রচলিত ৫টি ভুল ধারণা যা আপনার সচেতনতা বাড়াবে।

১. কফি হার্টের জন্য খারাপ নয়
কফি হার্টের জন্য খারাপ তো নয়ই, বরং ভালো। ‘‘নিয়মিত কফি পান করলে হার্টের অসুখের ঝুঁকি কম’’ – এ কথা জানান জার্মান পুষ্টি সোসাইটির আনট্যি গাল।

২. কফি পান করলে কি রক্তচাপ বাড়ে না
কফি পানের পরপরই রক্তের চাপ অল্প সময়ের জন্য কিছুটা বাড়ে ঠিকই, তবে এক সমীক্ষা থেকে জানা গেছে, নিয়মিত দিনে ৩-৪ কাপ কফি পান করলে তা রক্তের চাপ বাড়ায় না বা শরীরে এর কোনো নেতিবাচক প্রভাব পড়ে না। তবে যাদের আগে থেকেই হার্টের সমস্যা রয়েছে, তারা কতটা কফি পান করবেন, তা বিশেষজ্ঞের সাথে আলোচনা করে ঠিক করা উচিত।

৩. কফি ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় না
আন্তর্জাতিক ক্যানসার গবেষণা কেন্দ্রের দেয়া তথ্য অনুযায়ী কফি ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ানোয় কোনো ভূমিকা রাখে না। অন্যান্য গবেষণা থেকে জানা গেছে, কফিতে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বরং ক্যানসারের কোষ বাড়া বন্ধ করতে পারে।

৪. কফি ওজন কমাতে সাহায্য করে
কফি ওজন কমাতে সাহায্য করে এ কথা ভাবতে ভালো লাগে বলেই হয়ত অনেকে তা ভাবেন। কিন্তু এটা ভুল ধারণা। তবে যারা দুধ, চিনি বা ফ্যাটযুক্ত ক্রিম ছাড়া কফি, অর্থাৎ ‘ব্ল্যাক কফি’ পান করেন তা ওজন কমাতে খানিকটা ভূমিকা অবশ্যই রাখে।

৫. কফিতে নেশা হয় না
ড্রাগ, মদ বা নিকোটিনের মতো কফি পানে কেউ আসক্ত হয় না। তবে যারা নিয়মিত কফি পান করেন, তারা হঠাৎ করে ছেড়ে দিলে বা না করলে শরীর খারাপ লাগতে পারে বা মাথা ব্যথা হতে পারে যা স্বাভাবিক। তাছাড়া কফি পান করা কারো জন্য নিষিদ্ধ নয়, এমনকি শিশুকে বুকের দুধ পান করান কিংবা গর্ভবতী নারীও অনায়াসে দিনে ২/৩ কাপ কফি পান করতে পারেন।

১ thought on “কফি নিয়ে প্রচলিত ৫টি ভুল ধারণা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *