ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ফের নিয়ম পরিবর্তন

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, টি-টোয়েন্টিতেও যে কোনো নো-বলে ফ্রি হিট পাবেন ব্যাটসম্যান। এর আগে শুধু বোলারের ওভারস্টেপিংয়ের (লাইন মিস) জন্য নো-বল পেতেন ব্যাটসম্যানরা।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, টি-টোয়েন্টিতেও যে কোনো নো-বলে ফ্রি হিট পাবেন ব্যাটসম্যান। এর আগে শুধু বোলারের ওভারস্টেপিংয়ের (লাইন মিস) জন্য নো-বল পেতেন ব্যাটসম্যানরা।নতুন নিয়মে বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা টি-টোয়েন্টি সিরিজের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী, টি-টোয়েন্টিতেও যে কোনো নো-বলে ফ্রি হিট পাবেন ব্যাটসম্যান। এর আগে শুধু বোলারের ওভারস্টেপিংয়ের (লাইন মিস) জন্য নো-বল পেতেন ব্যাটসম্যানরা।

শুক্রবার বার্বাডোজে ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা আইসিসির বার্ষিক সভায় নতুন এ নিয়মের কথা জানান আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন। এছাড়াও একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নতুন কয়েকটি নিয়ম চালু হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

আগামী ৫ জুলাই বাংলাদেশ ও দক্ষিণ আফ্রিকার মধ্যেকার প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ নতুন নিয়মে হবে।

নতুন নিয়ম অনুযায়ী ওয়ানডেতে ৪১ থেকে ৫০ ওভারের সময় ফিল্ডিং করা দল ৫ জন খেলোয়াড়কে ৩০ গজ বৃত্তের বাইরে রাখতে পারবে। বর্তমান নিয়মে রাখা যায় ৪ জন। এছাড়া প্রথম ১০ ওভারে ২ জন ক্লোজফিল্ডার রাখার নিয়ম ছিল এতদিন। কিন্তু সেটাও উঠে গেল। নতুন নিয়মে ফিল্ডিং করা দলের অধিনায়ক ইচ্ছামত ফিল্ডিং সাজাতে পারবেন। এতে ওয়ানডেতে প্রথম ১০ ওভারের ২, পরের ৩০ ওভারে ৪ ও শেষ ১০ ওভারে ৫ জন ফিল্ডারকে ৩০ গজ বৃত্তের বাইরে রাখা যাবে।

এছাড়া ব্যাটিং পাওয়ার প্লে ৫ জুলাই থেকে কার্যকর হতে যাওয়া এ নিয়মে ওয়ানডেতে ব্যাটিং পাওয়ার প্লে বাতিল করা হয়েছে। ওয়ানডে এবং টি-টোয়ন্টিতে আরেকটি নিয়ম প্রবর্তন করা হয়েছে ‘নো’ বল সংক্রান্ত। এখন থেকে পা এবং উচ্চতা, যে কোন ‘নো’ বলে ব্যাটসম্যান ফ্রি-হিট পাবেন। এতদিন শুধু পায়ের ‘নো’ বলে ফ্রি-হিট পেত ব্যাটসম্যান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বার্বাডোজে চলমান আইসিসির বার্ষিক সভায় শুক্রবার এ সুপারিশ অনুমোদন করা হয়েছে। ক্রিকেট খেলা ব্যাটসম্যানদের অনুকূলে হয়ে যাচ্ছে বলে কিছুদিন ধরেই অভিযোগ ছিল। তার সত্যতাও আছে। সর্বশেষ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে তার প্রমাণ পাওয়া গেছে। ৩০০ এবং ৪০০ রানের দলীয় ইনিংস নিয়মিত দেখা গেছে সেখানে। আর এদিকে খেয়াল করেই আইসিসি ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি নিয়মে কিছু পরিবর্তন এনেছে।

এ বিষয়ে আইসিসির প্রধান নির্বাহী ডেভিড রিচার্ডসন বলেন, ‘আগের বিশ্বকাপগুলোকে বিচার বিশ্লেষণ করে নিয়মে কিছুটা পরিবর্তন আনা হয়েছে। খুব বেশি কিছু পরিবর্তন করা হয়নি। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অনেক জনপ্রিয় ফরমেট। সাধারণ দর্শকদের চাহিদার ভিত্তিতে বোলার ও ব্যাটসম্যানদের নৈপুন্যে সমন্বয় রাখার জন্য নিয়মে পরিবর্তন আনা হয়েছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *