বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটের ডাকা হরতালে তৃতীয় দফা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পেছালো।
শিক্ষাঙ্গন

এসএসসি পরীক্ষা ফের পেছালো

বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটের ডাকা হরতালে তৃতীয় দফা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পেছালো।বিএনপির নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোটের ডাকা হরতালে তৃতীয় দফা এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা পেছালো।

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা ১৩ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে দুপুর ১২টায় অনুষ্ঠিত হবে।

আর আগামী ১০ ফেব্রুয়ারির পরীক্ষা ১৪ ফেব্রুয়ারি শনিবার সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টায় অনুষ্ঠিত হবে।

শনিবার বিকেলে ৪টায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের জীবনের নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করেই পরীক্ষা পেছানোর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তাদের জীবনের নিরাপত্তা সর্বাধিক গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে। হরতাল-অবরোধের মধ্যে পরীক্ষা নিয়ে নেওয়ার চাপ থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে পরীক্ষা পেছানো হয়েছে।’

২০ দলীয় জোটের নেতাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের শিক্ষা পরীক্ষার্থীদের বিনীত আবেদন, আপনারা অন্তত পরীক্ষার দিনটি হরতালমুক্ত রাখুন। সেটি না করলেও যেন ন্যূনতম পরীক্ষার দুই ঘণ্টা আগে থেকে পরীক্ষা শেষে দুই ঘণ্টা পর পর্যন্ত হরতাল স্থগিত রাখুন।’

তিনি আরো বলেন, ‘১৫ লাখ শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে হলেও এই রাজনীতি বন্ধ করুন। নতুন প্রজন্মকে ধ্বংস করবেন না। ওরাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ কর্ণধার।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের পিট দেয়ালে ঠেকে গেছে। যে করে হোক আমরা পরীক্ষা নেবই। জাতিকে সহিংসতার দিকে ঠেলে দিবেন না। এতে আপনারা নিজেই ধ্বংস হয়ে যাবেন। পরীক্ষার্থীদের নিয়ে রাজনীতি করবেন না; তার ফল ভালো হবে না।’

এসময় উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা সচিব এন আই খান, জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন ও চট্টগ্রাম বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাহবুব হাসান।

আগামীকাল রোববার (৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে আট সাধারণ বোর্ডে ইংরেজি (আবশ্যিক) প্রথম পত্র; মাদরাসা বোর্ডে আরবি প্রথম পত্র এবং কারিগরি বোর্ডে গণিত-২ (১৯২৩) ও গণিত-২ (৮১২৩) বিষয়ের পরীক্ষা ছিল।

আর মঙ্গলবার (১০ ফেব্রুয়ারি) আট সাধারণ বোর্ডে ইংরেজি (আবশ্যিক) দ্বিতীয় পত্র; মাদরাসা বোর্ডে আরবি দ্বিতীয় পত্র এবং কারিগরি বোর্ডে বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয়-২ (সৃজনশীল) ও সামাজিক বিজ্ঞান-২ ( সৃজনশীল / সাধারণ) বিষয়ের পরীক্ষা হওয়ার কথা ছিল।

এদিকে শনিবার সকাল ১০টা থেকে একটা পর্যন্ত এসএসসিতে বাংলা (আবশ্যিক) দ্বিতীয় পত্র, সহজ বাংলা দ্বিতীয় পত্র এবং বাংলা ভাষা ও বাংলাদেশের সংস্কৃতি দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আর মাদরাসা বোর্ডে হয়েছে হাদিস শরিফ এবং কারিগরি শিক্ষা বোর্ডে ইংরেজি-২ এবং ইংরেজি-২ পরীক্ষা। এসব পরীক্ষা ৪ ফেব্রুয়ারি হওয়ার কথা থাকলেও হরতালের কারণে পিছিয়ে নেয়া হয়।

এনিয়ে চার দিনের নির্ধারিত ২০টি বিষয়ের পরীক্ষা হরতালের কারণে চার দিনে পেছানো হলো।

এদিকে বিএনপি নেতৃত্বাধীন টানা অবেরোধের মধ্যে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অনুষ্ঠিত এ বছরের এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন বাংলা প্রথম পত্রে ২১৭ জন শিক্ষার্থী অনুপস্থিত ছিল। গত ২ ফেব্রুয়ারি পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের হরতালের কারণে তা দু’দফা পেছানোর পর শুক্রবার সরকারি ছুটির দিনে শুরু হয় এবারের এসএসসি পরীক্ষা।

এবার সারাদেশে ৩ হাজার ১১৬টি কেন্দ্রে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। ১০টি শিক্ষা বোর্ডের মোট পরীক্ষার্থী ১৪ লাখ ৭৯ হাজার ২৬৬ জন। তবে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রথম দিনেই সারাদেশে ৭ হাজার ২৭৭ পরীক্ষার্থী অংশ নেয়নি।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *