এফবিসিসিআই নির্বাচনে মাতলুব প্যানেলের জয়

এফবিসিসিআই পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে চেম্বার গ্রুপের ভোটের ফলাফলে নিটল-নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমেদ নেতৃত্বাধীন প্যানেল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

এফবিসিসিআই পরিচালনা পর্ষদ নির্বাচনে চেম্বার গ্রুপের ভোটের ফলাফলে নিটল-নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমেদ নেতৃত্বাধীন প্যানেল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইর পরিচালনা পর্ষদের নির্বাচনে চেম্বার গ্রুপের ভোটের ফলাফলে নিটল-নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান আবদুল মাতলুব আহমেদ নেতৃত্বাধীন প্যানেল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছে।

চেম্বার গ্রুপের ১৬টি পরিচালক পদের মধ্যে মাতলুবের ‘ব্যবসায়ী উন্নয়ন পরিষদ’ ১২টিতে জয়ী হয়েছে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনার আলী আশরাফ।

আর ‘স্বাধীনতা ব্যবসায়ী পরিষদ’ থেকে পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন চারজন। চট্টগ্রাম উইমেন চেম্বারের সভাপতি ও এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান পরিচালনা পর্ষদের প্রথম সহসভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলী ‘স্বাধীনতা ব্যবসায়ী পরিষদের’ নেতৃত্বে রয়েছেন।

রাজধানীর মতিঝিলে ফেডারেশন ভবনে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলে।

এই মেয়াদে চেম্বার গ্রুপ থেকে সভাপতি, অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে প্রথম সহ-সভাপতি ও চেম্বার গ্রুপ থেকে সহ-সভাপতি নির্বাচিত হবে। সোমবার এই তিনটি পদে নির্বাচন হবে। নতুন কমিটি ঘোষণা করা হবে ২৮ মে।

চেম্বার গ্রুপে প্রার্থী ছিলেন মোট ৩২জন। দেশের ৭৮টি চেম্বারের ৪৩৬ জন ভোটারের মধ্যে ৪১৮ জন এবার ভোট দিয়েছেন।

আলী আশরাফ জানান, এ গ্রুপ থেকে নির্বাচিত পরিচালকদের মধ্যে উন্নয়ন পরিষদের আমিনুল হক শামীম সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ৩৩৫ ভোট।

এ প্যানেলের নির্বাচিত বাকি পরিচালকরা হলেন-দিলীপ কুমার আগারওয়াল (৩১৮ ভোট), গাজী গোলাম আশরিয়া (৩১২ ভোট), শেখ ফজলে ফাহিম (২৯৬ ভোট), নিজাম উদ্দিন (২৯৫ ভোট), প্রবীর কুমার সাহা (২৮৫ ভোট), নূরুল হুদা মুকুট (২৬৪ ভোট), হাসিনা নেওয়াজ (২৫৫ ভোট), নাগিবুল ইসলাম দিপু (২৪৯ ভোট), বজলুর রহমান (২৪০ ভোট), মোহাম্মদ আনোয়ার সাদাত সরকার (২৩৯ ভোট) ও রেজাউল করীম রেনজু (২১৩ ভোট) পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন।

আর ‘স্বাধীনতা ব্যবসায়ী পরিষদ’ থেকে নির্বাচিত হয়েছেন মনোয়ারা হাকিম আলী (২৯৩ ভোট),মাসুদ পারভেজ খান ইমরান (২৪৬ ভোট)ও তাবারাকুল তোসাদ্দেক হোসেন খান টিটো (২৩৩ ভোট)।

বাকি একটি পরিচালক পদে সমান ভোট পেয়েছেন কোহিনুর ইসলাম ও মো. মাসুদ। তারা দুজনই মনোয়ারা হাকিম আলীর প্যানেলের প্রার্থী। দুজনই পেয়েছেন ২০৫ ভোট।

তাদের বিষয়ে ‘নির্বাচনী বিধি অনুযায়ী’ পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে নির্বাচন কমিশনার আলী আশরাফ জানিয়েছেন।

অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপে ১৬টি পরিচালক পদে এবার প্রার্থী ছিলেন ৩৩ জন। দেশের ৩৫৫টি ব্যবসায়ী অ্যাসোসিয়েশনের ১ হাজার ৭৬৪ জন ভোটারের মধ্যে ভোট দিয়েছেন ১ হাজার ৫৩৩ জন।

অর্থাৎ, দুই গ্রুপের ২ হাজার ২০২ জন ভোটারের মধ্যে ১ হাজার ৯৫১ জন তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনে ভোট দিয়েছেন। তাদের ভোটে চেম্বার গ্রুপ থেকে ১৬ জন ও অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে ১৬ জন করে মোট ৩২ জন পরিচালক পর্ষদে যাবেন।

এছাড়া ১০টি করে বিশেষ চেম্বার ও অ্যাসোসিয়েশন রয়েছে, যেগুলোর প্রতিটি থেকে একজন করে প্রতিনিধি এফবিসিসিআইয়ের পরিচালনা পর্ষদে থাকছেন মনোনীত পরিচালক হিসেবে।

রাজশাহী চেম্বার থেকে মনোনীত মাতলুব আহমেদ এরইমধ্যে এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক হয়েছেন।

নির্বাচিত ও মনোনীত এই ৫২ পরিচালকই সোমবার পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি, প্রথম সহ-সভাপতি ও সহ-সভাপতি নির্বাচন করবেন।

চেম্বার গ্রুপ থেকে ১০ জন মনোনীত পরিচালক
বাংলাদেশ চেম্বারের মোহাম্মদ ইসমাইল হোসাইন, বরিশাল চেম্বারের সাইদুর রহমান রিন্টু, চট্টগ্রাম চেম্বারের মাহবুবুল আলম, ঢাকা চেম্বারের বেঞ্জির আহমেদ, ঢাকা উইমেন চেম্বারের নাজ ফারহানা আহমেদ, খুলনা চেম্বারের কাজী আমিনুল ইসলাম, মেট্রোপলিটন চেম্বার ঢাকার কামরান টি রহমান, রাজশাহী চেম্বারের আব্দুল মাতলুব আহমদ, রংপুর চেম্বারের মো. মোসাদ্দিক হোসাইন বাবুল এবং সিলেট চেম্বারের শামিম আহমেদ।

এসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে ১০ জন মনোনীত পরিচালক
বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্সের মো. নজরুল ইসলাম মজুমদার, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব ইন্টারন্যাশনাল রিক্রুটিং এজেন্সির (বায়রা) মনসুর আহমেদ কালাম, বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতির এসএম সফিউজ্জামান, বাংলাদেশ ফ্রোজেন ফুডস্ এক্সপোটার্স এসোসিয়েশনের এসএম আমজাদ হোসাইন, বাংলাদেশ গার্মেন্ট ম্যানুফ্যাকসার্স অ্যান্ড এক্সপোটার্স এসোসিয়েশন (বিজিএমইএ) মো. সফিউল ইসলাম, বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স এসোসিয়েশনের শেখ কবির হোসাইন, বিকেএমইএ’র একেএম সেলিম ওসমান এমপি, বাংলাদেশ প্লাস্টিক গুডস্ ম্যানুফ্যাকসার্স অ্যান্ড এক্সপোটার্স এসোসিয়েশনের মো. জসিম উদ্দিন, বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস এসোসিয়েশনের (বিটিএমএ) তপন চৌধুরী এবং বাংলাদেশ জুট মিল এসোসিয়েশনের মুহাম্মদ শামস-উজ- জোহা।

এদিকে, ২০১৫-১৭ নির্বাচনে চেম্বার ও এসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে উন্নয়ন পরিষদের প্রার্থীরা সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছেন। প্যানেলটির ৩২ জন প্রার্থীর মধ্যে ২৫জন প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। এর মধ্যে চেম্বার গ্রুপ থেকে ১২ জন এবং এসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে ১৩ জন বিজয়ী হয়েছেন। প্যানেলটির নেতৃত্ব দেন নিটল নিলয় গ্রুপের চেয়ারম্যান ও রাজশাহী চেম্বার থেকে মনোনীত পরিচালক আব্দুল মাতলুব আহমাদ। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্যানেল এফবিসিসিআইয়ের বর্তমান প্রথম সহ-সভাপতি মনোয়ারা হাকিম আলীর নেতৃত্বাধীন ‘স্বাধীনতা ব্যাবসায়ী পরিষদ’ চেম্বার গ্রুপ থেকে ৪ জন এবং এসোসিয়েশন গ্রুপের নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোয়াজ্জেম-এরতেজা-শাফকাত হায়দারের নেতৃত্বাধীন ‘ব্যবসায়ী ঐক্য পরিষদ’ থেকে ৩ জন নির্বাচিত হয়েছেন।

উল্লেখ্য, শনিবার চেম্বার ও এসোসিয়েশন গ্রুপের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এদিন নির্বাচিত ৩২টি পরিচালক পদের জন্য সকাল নয়টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত মতিঝিল ফেডারেশন ভবনে ভোটগ্রহণ চলে । রাত ৮ থেকে ভোট গণনা শুরু হয়ে চলে রাতভর। মধ্যরাতের পূর্বে চেম্বার গ্রুপের ভোট গণনা শেষে বিজয়ী প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয় এবং রোববার সকালে অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপ থেকে নির্বাচিত পরিচালকদের নাম ঘোষণা করা হয়। সেই সঙ্গে মনোনীত পরিচালকদের নামও ঘোষণা করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *