দুই দিনেই ১ কোটি ৪০ লাখ পিসিতে উইন্ডোজ ১০

মাত্র দুই দিনেই এক কোটি ৪০ লাখ পিসিতে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার শুরু হয়ে গেছে। এ দাবি মাইক্রোসফটের।

মাত্র দুই দিনেই এক কোটি ৪০ লাখ পিসিতে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার শুরু হয়ে গেছে। এ দাবি মাইক্রোসফটের।  মাত্র দুই দিনেই এক কোটি ৪০ লাখ পিসিতে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার শুরু হয়ে গেছে। এ দাবি মাইক্রোসফটের।

আসল উইন্ডোজ ৭,৮ ও ৮.১ ব্যবহারকারীদের বিনা মূল্যে উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেম হালনাগাদ করার সুবিধা দিচ্ছে মাইক্রোসফট যা ২৯ জুলাই থেকে শুরু হয়েছে।

২০১৮ সাল অর্থাৎ আগামী তিন বছরের মধ্যে ১০০ কোটি ডিভাইসে উইন্ডোজ ১০ চালু করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে মাইক্রোসফট কর্তৃপক্ষ। তাদের দাবি, এখন ধাপে ধাপে উইন্ডোজ ১০ উন্মুক্ত করা হচ্ছে যাতে ব্যবহারকারীরা কোনো রকম সমস্যা ছাড়া তা ডাউনলোড করে নিতে পারেন।

৩০ জুলাই মাইক্রোসফট এক ব্লগ পোস্টে লিখেছে, পুরোনো উইন্ডোজ সফটওয়্যার চালিত পণ্য ব্যবহারকারীদের মধ্যে যারা হালনাগাদ সংস্করণটি পাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তাদের সবাইকে এখনো হালনাগাদ করার সুযোগ দেয়া হয়নি। যে এক কোটি ৪০ লাখ পিসিতে হালনাগাদ সফটওয়্যার ব্যবহৃত হচ্ছে তার মধ্যে বেশ কিছু নতুন পিসিও রয়েছে।

পিসির পাশাপাশি মোবাইল প্ল্যাটফর্মের জন্যও উইন্ডোজ ১০ মোবাইল অপারেটিং সিস্টেমটি শিগগিরই উন্মুক্ত করার পরিকল্পনা করছে মাইক্রোসফট। এ বছরের নভেম্বরেই উইন্ডোজ ১০ মোবাইল হালনাগাদ পাওয়া যেতে পারে।

‘ব্যবহারকারীর গোপন তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে উইন্ডোজ ১০’

মাইক্রোসফটের অপারেটিং সিস্টেম উইন্ডোজ ১০ ব্যবহারকারীর গোপন ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। প্রযুক্তি সাংবাদিক এবং ব্লগাররা এ অভিযোগ তুলেছেন।

উইন্ডোজ-১০ আনুষ্ঠানিক ভাবে প্রকাশিত হওয়ার মাত্র দু’দিনের মাথায় এক কোটি ৪০ লাখ বার ডাউনলোড করা হয়েছে। এ ছাড়া, উইন্ডোজ ১০’কে অনেকেই বিস্ময়কর, অনবদ্য এবং দারুণ বলে মন্তব্য করতে শুরু করছেন। উইন্ডোজ ১০’কে নিয়ে আরো অনেক প্রশংসাসূচক শব্দ বা বাক্যও শোনা যাচ্ছে। এর আগের যে কোনো সংস্করণের চেয়ে নতুন এই উইন্ডোজ অনেক বেশি গতি সম্পন্ন, আরামদায়ক এবং ব্যবহার বান্ধব বলেও মন্তব্য শোনা গেছে।

কিন্তু জনপ্রিয় এ নতুন অপারেটিং সিস্টেমের ডিফল্ট বা অন্তর্নিহিত অপরিহার্য ব্যবস্থা হিসেবে ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিচ্ছে উইন্ডোজ ১০। বিজিআর নিউজের জাক এস্টেইন বলেন, যে সব ফিচারকে প্রাইভেসি বিরোধী বলে মনে করা হচ্ছে তা উইন্ডোজ ১০’এর ডিফল্ট বা অপরিহার্য হিসেবে সংযুক্ত রয়েছে। মাইক্রোসফটের ইমেইল সেবাদানকারী সংস্থা আউটলুকের একাউন্টের মাধ্যমে উইন্ডোজ ১০ ব্যবহার করতে সাইন ইন করতে হয়। এতে ব্যবহারকারীর ইমেইল, কন্টাক্ট এবং ক্যালেন্ডারের সব ডাটা পড়ার সুযোগ পেয়ে যা্চ্ছে মাইক্রোসফট। নিজ ব্লগে এ বিষয়ে লিখেছেন, ওয়েব ডেভপলার জনাথন পোর্টা। উইন্ডোজ ১০ এর প্রাইভেসি বিরোধী ডিফল্ট তাকে সত্যিই বিস্মিত করেছে। এ ছাড়া তিনি আরো জানান, ব্যবহারকারীরা অবস্থান এবং অবস্থান বিষয়ক ইতিহাসও হাতিয়ে নিচ্ছে এ অপারের্টিং ব্যবস্থা।

তিনি আরো বলেন, প্রাইভেসি বিরোধী এ ব্যবস্থাকে ডিজএবল বা অকার্যকর করতে হলে অন্তত ১৩টি আলাদা স্ক্রিন এবং পৃথক ওয়েবসাইটকে অকার্যকর করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *