ইউনেস্কো'র বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকা প্রকাশ
আন্তর্জাতিক

ইউনেস্কো’র বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকা প্রকাশ

ইউনেস্কো'র বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকা প্রকাশইউনেস্কো বেশ কিছু দিন আগে বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকা প্রকাশ করেছে। ইউনেস্কো ঘোষিত বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকায় যেসব বিষয় স্থান পেয়েছে এর মধ্যে রয়েছে- ভারত, জার্মানি, ইরান, মেক্সিকোসহ বিশ্বের কয়েকটি দেশের ঐতিহ্যবাহী কিছু স্থান ও স্থাপনা এবং শিল্পকর্ম। ইউনেস্কো’র বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকায় উল্লেখযোগ্য যে ১১টি ঐতিহ্যবাহী স্থান ও স্থাপনা এবং শিল্পকর্ম রয়েছে জেনে নিন।

১. দক্ষিণ পশ্চিম ইউরোপে নৃতাত্ত্বিক স্থান

তুরস্কের অনি শহরের মধ্যযুগীয় এই এলাকা বিশ্ব ঐতিহ্যের নতুন তালিকায় স্থান পেয়েছে৷ ৯৬১ থেকে ১০৪৫ সালের মধ্যে বাগরাতিদ আর্মেনীয় সাম্রাজ্যের রাজধানী ছিল অনি৷ এছাড়া প্রাচীন গ্রিসের ফিলিপ্পি এবং চেকোশ্লোভাকিয়ার স্টেসির মধ্যযুগীয় স্মৃতিস্তম্ভও রয়েছে এই তালিকায়৷

২. ইরানের মরুভূমি

পারস্যের কানাত ভূগর্ভস্থ পানি পরিবহনের স্থান এই তালিকায় যুক্ত হয়েছে৷ প্রথমবারের মতো এমন একটি প্রযুক্তিগত স্মৃতিস্তম্ভ এই তালিকায় স্থান পেল৷ এছাড়া ইরানের লুত মরুভূমি আছে এই তালিকায়৷ বিশ্বের সবচেয়ে উষ্ণ এলাকা এটি এবং ইরানের প্রথম প্রাকৃতিক ঐতিহ্যের তালিকায় ঠাঁই পাওয়া স্থান৷

৩.জিব্রালটারের নিয়ানডার্থাল গোরহাম গুহা

জিব্রালটার বোরের পূর্বাঞ্চলের চারটি গুহা মানব সভ্যতার বিবর্তনের সাক্ষী৷ এর বাইরের অন্য নিদর্শনগুলো হলো, স্পেনের দক্ষিণাঞ্চলের প্রাচীন অ্যান্টিকোয়েরার পাথরের টেবিল৷

৪.ভারতের নালন্দা বিশ্ববিদ্যালয়

নতুন তালিকার মধ্যে রয়েছে ভারতের বিহারে অবস্থিত নালন্দা মহাবিহার বিশ্ববিদ্যালয়ের পুরাতাত্ত্বিক নিদর্শন৷ এখানে গৌতম বুদ্ধের একটি ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ধ্বংসাবশেষ রয়েছে৷ তৃতীয় শতাব্দী থেকে অষ্টম শতাব্দী পর্যন্ত বৌদ্ধ ভিক্ষুরা এখানে প্রার্থনা ও জ্ঞানদান করতেন৷ এছাড়া হিমালয়ের কাঞ্চনজঙ্ঘা ন্যাশনাল পার্কও আছে এই তালিকায়৷

৫.চীনের প্রস্তরচিত্র এবং বনানী

চীনেও আছে দুটি নির্দশন৷ একটি মাউন্ট হুয়া সান এ খ্রিষ্টপূর্ব পঞ্চম শতকের আদিম মানুষদের পাথরে আঁকা জীবন ও আচার-আচরণের ছবি৷ অন্যটি সেনংসিয়ার বনাঞ্চল৷ সেখানে বিল প্রজাতির অনেক প্রাণী রয়েছে, যেমন স্বর্ণ বানর৷

৬.মাইক্রোনেশিয়ার প্রাচীন আচার-অনুষ্ঠানের কেন্দ্র

মাইক্রোনেশিয়ার প্রথম ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্য স্থান৷ এখানে প্রাসাদ, মন্দির, কবরস্থানের ধ্বংসাবশেষ রয়েছে৷ পনপেইয়ের উপকূলে ৯৯ টি কৃত্রিম দ্বীপে এসব ধ্বংসাবশেষ রয়েছে৷ ৫০০ বছর আগেই সেখান থেকে বসতি উঠে গেছে৷

৭. আধুনিক ব্রাজিলের স্থাপত্য

পাপুলহায় ক্যাসিনো, বলরুম, গল্ফ ও ইয়াট ক্লাব রয়েছে৷ আর আছে একটি গীর্জা৷ এই অবকাশযাপন কেন্দ্রটি কৃত্রিম লেকের নকশায় তৈরি৷ ১৯৪০ সালে এটি নির্মিত হয়৷

৮.ক্যারিবীয় স্থাপত্য

অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডার কোনো স্থান এই প্রথম ইউনেস্কো বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় জায়গা পেলো৷ দুটি দ্বীপ ১৮ শতকের ঔপোনিবেশিক স্থাপত্যে সমৃদ্ধ।

৯.মেক্সিকোর সমুদ্রসম্পদ

রেভিলাগিগেডো আর্কিপেলাগো মেক্সিকোর ৬ষ্ঠ স্থান যা ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেলো৷ এখানকার দ্বীপগুলো বিরল প্রজাতির হাঙ্গর, তিমি, ডলফিন ও কচ্ছপের বিচরণক্ষেত্র৷

১০.কানাডার প্রবাল উপকূল

এই উপকূলে এতই প্রবাল যে দিক ভুল হলে জাহাজ টুকরো টুকরো হয়ে যেতে পারে৷ নিউফাউন্ডল্যান্ডের অ্যাভালন উপত্যকার এই স্থানটিকে এখন জীবাশ্ম স্থান বলা হয়৷ এখানকার জীবাশ্মগুলো ৫০ লাখ বছরের পুরোনো এবং বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন৷

১১.স্ট্যুটগার্টের লে কর্বুসিয়ার

জার্মানির স্ট্যুটগার্টের ভাইসেনহফসিডলুং-এর লে কর্বুসিয়ার দুটি বাড়ি স্থাপত্যনিদর্শন হিসেবে বিখ্যাত৷ ২০০২ সাল থেকে বাড়ি দুটিকে জাদুঘর বানানো হয়েছে৷-ডিডব্লিউ

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *