আর্জেন্টিনার ৭-০ গোলের জয়

আর্জেন্টিনার ৭-০ গোলের জয়

210
0
SHARE

মেসি, আগুয়েরো ও গাইতানের জোড়া গোলে হংকংয়ের বিপক্ষে ৭-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেসির আর্জেন্টিনা।‘দুর্বল’ হংকংকে পেয়ে গোল উৎসবে মেতে উঠলো আর্জেন্টিনা। মেসি, আগুয়েরো ও গাইতানের জোড়া গোলে হংকংয়ের বিপক্ষে ৭-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে মেসির আর্জেন্টিনা।

মঙ্গলবার আলবেসেলেস্তেদের হয়ে গোলের শুরুটা করেন এভার বানেগা। খেলার ১৯তম মিনিটে হংকংয়ের গোলরক্ষকের ভুলে গোল পায় আর্জেন্টিনা। গোলবার ছেড়ে স্বাগতিক গোলরক্ষক ইয়াপ বেরিয়ে আসায় বল পেয়ে যান বানেগা। ফাকা পোস্টে গোল করতে সমস্যা হয়নি তার।

খেলার ৪২তম মিনিটে দলের হয়ে দ্বিতীয় গোলটি করেন আগুয়েরো। বানিয়েঙ্গার ক্রস থেকে ভেসে আসা বলে জোড়ালো হেডে বল জালে জড়াল নাপোলির এই তারকা।

দুই মিনিট পর গাইতানের গোলে ৩-০ তে এগিয়ে যায় আর্জেন্টিনা।

বিরতির পর আবার গোল করেন আগুয়েরো। ডি বক্সের ভেতরে বানেগা বল পেয়ে আগুয়েরোর দিকে বাড়িয়ে দেন। বল পেয়ে জোড়ালো শটে গোল করেন আগুয়েরো।

৬০ মিনিটে হংকংয়ের গ্যালারি ফেটে পড়ে উল্লাসে। আর্জেন্টাইন কোচ টাটা মার্টিনো ৬০ মিনিটের মাথায় মেসিকে মাঠে নামান। নিজের যোগ্যতা প্রমাণ করতে খুব একটা সময় নেননি বার্সা তারকা মেসি। গাইতানের পাস থেকে ডি বক্সের ভেতরে বল পেয়ে আলতো টোকায় বল জালে জড়ান আর্জেন্টিনার ক্ষুদে জাদুকর। ফলে মেসিরা এগিয়ে যায় ৫-০ গোলে।

এই গোলের ছয় মিনিট পর গাইতার দলের ষষ্ঠ ও নিজের দ্বিতীয় গোল আদায় করে নিয়ে ৬-০ তে এগিয়ে যায় আকাশি-সাদা জার্সিরা।

খেলা শেষ হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে ডি বক্সের ভেতরে পাঁচজন ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে আলতো শটে বল জালে জড়ান ‘এলএম টেন’।

খেলার শেষ মিনিটে হ্যাটট্রিকটা পেয়েই যেতেই লিও। ডি বক্সের ভেতরে চারজনকে কাটিয়ে গোলপোস্টে শট নেন মেসি। তবে তার ‘দুর্বল’ শট জাপান গোলরক্ষক ইয়েপ দারূণ দক্ষতায় রুখে দেন। ফলে ৭-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টাটা মার্টিনোর দল।

গত শনিবার ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে যা্ওয়া আর্জেন্টিনার জন্য ৭-০ গোলের জয় কিছুটা হলেও স্বস্তি দিবে আলবেসেলেস্তে শিবিরকে।

প্রসঙ্গত, আগামী মাসে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে এক প্রীতি ম্যাচে মুখোমুখি হবে মেসির আর্জেন্টিনা ও রোনাল্ডোর পর্তুগাল।

Comments

comments