‘আগের সব নির্বাচনের চেয়ে সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন রেখেছেন, ‘নির্বাচনে যদি কারচুপি হয়, তাহলে এত কম সময়ে বিএনপি এত ভোট কীভাবে পেল?’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন রেখেছেন, ‘নির্বাচনে যদি কারচুপি হয়, তাহলে এত কম সময়ে বিএনপি এত ভোট কীভাবে পেল?’প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন রেখেছেন, ‘নির্বাচনে যদি কারচুপি হয়, তাহলে এত কম সময়ে বিএনপি এত ভোট কীভাবে পেল?’

তিনি বলেন, ‘ঢাকা ও চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মানুষ বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে। এ নির্বাচনে গণতন্ত্রের বিজয় হয়েছে। আগের সব নির্বাচনের চেয়ে সুষ্ঠু হয়েছে। এ রায় সন্ত্রাস, নাশকতাকারীদের বিরুদ্ধে জনরায়।’

বিএনপির অবরোধ-হরতালে ক্ষতিগ্রস্ত বাস-মালিকদের আর্থিক অনুদান প্রদান শেষে বুধবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে এ কথা বলেন তিনি।

আগের নির্বাচনের চেয়ে তিন সিটি নির্বাচনে সুষ্ঠু ভোট হয়েছে দাবি করে প্রধানমন্ত্রী বিএনপির শাসনামলে মাগুরাসহ কয়েকটি নির্বাচনের কথা উল্লেখ করেন। তিনি বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার উদ্দেশে বলেন, “নিজের দোষটা দেখেন না?”

বিএনপির টানা তিন মাসের অবরোধ-হরতালের সহিংসতার কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, “এর পরও মানুষ বিএনপি করে কী করে! খালেদাকে ভোট দেয় কী করে! ভেবে পাই না আমি।”

আইনশৃঙ্খলা বাহিনী- বিজিবি, র‌্যাব ও নির্বাচন কমিশনসহ (ইসি) নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত সবাইকে অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সবার প্রচেষ্টায় সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব হয়েছে। এ নির্বাচনে জয়ী হয়েছেন গণতন্ত্রের সেবকরা।’

নির্বাচনে মিডিয়ার ভূমিকা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্বাচন নিয়ে মিডিয়ার ভূমিকা থাকা উচিত। সন্ত্রাস, নাশকতাকারীদের পক্ষ না নিয়ে গণতন্ত্রের কথা বলা উচিত।’

সন্ত্রাস, নাশকতাকারীদের কাছ থেকে দূরে থাকতে সংবাদকর্মীদের প্রতিও আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি একটি ‘কুৎসিত সংগঠন’। সিটি নির্বাচনে ঢাকা ও চট্টগ্রামবাসী তাদের প্রত্যাখ্যান করেছে। এ জন্য নিজেরা পাল্টি খেয়েছে। ঢাকা ও চট্টগ্রামবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, আগামীতেও তাদের প্রত্যাখ্যান করবে জনগণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *