অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৫১৭

সফরকারি ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে রানের পাহাড় গড়েছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৫১৭।

সফরকারি ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে রানের পাহাড় গড়েছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৫১৭।পিঠের ব্যথা এবং ফিলিপ হিউজের অকাল মৃত্যুতে মুহ্যমান হওয়া সত্ত্বেও ভারতের বিপক্ষে প্রেরণাদায়ক সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন অস্ট্রেলীয় অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। সেই সাথে সফরকারি ভারতের বিপক্ষে প্রথম টেস্টে রানের পাহাড় গড়েছে স্বাগতিকরা। দ্বিতীয় দিন শেষে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৭ উইকেটে ৫১৭।

স্টিভ স্মিথের সঙ্গে জুটিবদ্ধ হয়ে ১৬৩ রান সংগ্রহকারী ক্লার্ক প্রথমদিন পিঠের ব্যথায় কাতর হয়ে মাত্র ৬০ রান করার পরই বিশ্রামে চলে যান। পরে ব্যথানাশক ওষুধ সেবনের পর ফের ব্যাট হাতে ক্রিজে আসেন তিনি।

এডিলেডে বৃষ্টিবিঘ্নিত দ্বিতীয় দিনে অধিনায়কের এই ২৮তম সেঞ্চুরিতে হিউজের মর্মান্তিক মৃত্যুকে ছাপিয়ে প্রথম ইনিংসেই বড় একটি সংগ্রহ দাঁড় করায় অস্ট্রেলিয়া। মঙ্গলবার ডেভিড ওয়ার্নারের সেঞ্চুরি এবং পরবর্তীতে ক্লার্ক ও স্মিথের সেঞ্চুরিতে ভর করে ৭ উইকেটে ৫১৭ রান স্কোর বোর্ডে জমা করেছে অস্ট্রেলিয়া। এদিন ক্লার্ক ১৬৩ বলের মোকাবেলায় ১৮টি বাউন্ডারির সাহায্যে করেন ১২৮ রান। স্মিথের সঙ্গে সপ্তম উইকেট জুটিতে তিনি যোগ করেন মূল্যবান ১৬৩ রান।

এদিকে স্মিথও এদিন ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ টেস্ট রান সংগ্রহ করেছেন ৫ম টেস্ট সেঞ্চুরি হাকানোর মধ্য দিয়ে। তিনি সংগ্রহ করেন অপরাজিত ১৬২ রান। সর্বশেষ ১৫ ইনিংস থেকে তিনি তুলে নিয়েছেন চারটি সেঞ্চুরি।

স্মিথ বলের, ‘ক্লার্ক ও ওয়ার্নারসহ আমরা ছিলাম হিউজের ভালো বন্ধু। যে কারণে তার স্মৃতিকে সম্মান জানানোর জন্য আমরা সবাই চেয়েছিলাম রানের মধ্যে থাকতে। এদের মধ্যে তিনজনই আমরা রান পেয়েছি। ১ম ইনিংস থেকে স্কোর বোর্ডে ৫১৭ রানের সংগ্রহটি দেখতেই ভাল লাগছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি জানি হিউজের চাওয়াটা কি ছিল। এখানে সবাই নিজ নিজ কাজটি ভালোভাবে সম্পাদন করছে। সে আমি ক্লার্ক ও ওয়ার্নার এই ইনিংসে যেকোনোভাবেই হোক তার চাওয়াটাকে পূরণ করতে চেয়েছি।’

বৃষ্টির কারণে বুধবার তিনদফা খেলা বন্ধ থাকার পরও এদিন মাত্র ৩০.৪ ওভার বোলিংয়ের বিপরীতে এগিয়ে যাওয়াটা বেশ কঠিন ছিল। অস্বস্তি নিয়ে ব্যাট করার পরও ক্রিজে নিজের ব্যাটিং নিয়ে নিজেই বিস্মিত হয়েছেন ক্লার্ক। প্রথম দিনের শেষ ৫ ওভারে তিনটি উইকেট খোয়ানোর পরও বিশাল রান সংগ্রহ করতে ক্লার্ককে উপযুক্ত সঙ্গ দিয়েছেন স্মিথ। আকস্মিক পিঠে টান পড়ে ক্লার্কের। এসময় তিনি ব্যথায় কাতর হয়ে পড়েন। তারপরও শেষ পর্যন্ত স্মিথ ও ক্লার্ক মিলেই ভারতীয়দের বিপক্ষে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ অনেকটাই নিজেদের গ্রীবে নিয়ে আসতে সক্ষম হন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর

অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস : ৫১৭/৭ (স্মিথ ১৬২*, ক্লার্ক ১২৮, ওয়ার্নার ১৪৫; শামি ২/১২০, অ্যারন ২/১৩৬, কার্ন ২/১৪৩)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *