যেসব দেশের জনসংখ্যা অলিম্পিক প্রতিযোগির চেয়ে কম
খেলা

যেসব দেশের জনসংখ্যা অলিম্পিক প্রতিযোগির চেয়ে কম

যেসব দেশের জনসংখ্যা অলিম্পিক প্রতিযোগির চেয়ে কমঅলিম্পিক, ‘দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ’ এখানে কতকিছুই না হয়। কত দেশ, কত ভাষা, কত সংস্কৃতি, নতুন নতুন আরও কত কিছুই না জানতে পারি আমরা। আরও কতকিছুই না মজার তথ্য আছে। আপনি কি জানেন, এবার রিও অলিম্পিকে (Rio Olympic 2016) অংশগ্রহণকারী ২০৭টি দেশের মধ্যে এমন ৩০টি দেশ অংশ নিচ্ছে যেখানে গেমসের মোট প্রতিযোগির সংখ্যা তিন বা তার কম!

তবে এই প্রতিবেদন এমন দুটি দেশকে নিয়ে, যাদের মোট জনসংখ্যা অলিম্পিকে অংশ নেওয়া মোট প্রতিযোগির থেকেও কম। অর্থাৎ, এগারো হাজারের নিচে!

১৷ তুভালু

ওশিয়ানিয়া মহাদেশের একটি ছোট্ট দেশ। যাদের বর্তমান জনসংখ্যা সাড়ে দশ হাজারের মতো। দীর্ঘদিন ব্রিটেনের অধীনে ছিল এই দেশ। তখন নাম ছিল এলিস আইল্যান্ড। ১৯৭৮ সালে স্বাধীনতার পর নাম বদলে হয় তুভালু (Tuvalu)।

এবার এই দেশ থেকে মাত্র একজন প্রতিযোগি অংশ নিচ্ছেন। নাম এতিমোনি তিমুয়ানি (
Etimoni Timuani)। মারাকানা স্টেডিয়ামে দেশের পতাকা বইবেন তিনি একাই। এরপর নামবেন বোল্টের ইভেন্ট ১০০ মিটার দৌড়ে। তবে তিমুয়ানি প্রকৃতপক্ষে একজন পেশাদার ফুটবলার।

২৷ নাউরু

এটিও ওশিয়ানিয়ার একটি দেশ। যাদের বর্তমান জনসংখ্যা এগারো হাজারের কাছাকাছি। জার্মান-অস্ট্রিয়াদের অধীনে অনেকটা সময় কাটাতে হয়েছে তাদের। ১৯৬৮ সালে স্বাধীনতা পায় দেশটি। ফসফরাসের জন্য গোটা বিশ্বে নাম আছে নাউরুর (Nauru)।

এবারই প্রথম অলিম্পিকে অংশ নিচ্ছে দেশটি। প্রতিযোগির সংখ্যা দুই। একজন নামবেন জডোতে, নাম ওভিনি উয়েরা (Ovini Uera)। আর অপর জন্য এলসন ব্রেচফেল্ড (Elson Brechtefeld), অংশ নেবেন ভারোত্তলনে।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *