বাংলাদেশেই হচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট
খেলা

বাংলাদেশেই হচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট

বাংলাদেশেই হচ্ছে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট আগামী আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেট বাংলাদেশেই অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার দুবাইতে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা- আইসিসির বোর্ড সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পরে সংস্থাটির ওয়েবসাইটে বলা হয়, বোর্ড নিশ্চিত করছে, আগামী বছরের আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আয়োজক দেশ বাংলাদেশ। ২২ জানুয়ারি থেকে ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত এই আসর হবে।

বাংলাদেশের কক্সবাজারেই হচ্ছে অনূর্ধ-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপের ১৮টি ম্যাচ। আসছে বিশ্বক্রিকেট পরাশক্তি অস্ট্রেলিয়া। আর এতে নড়েচড়ে বসেছে বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিসিবি।

মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে যুব বিশ্বকাপের ভেন্যুস্থল কক্সবাজার শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের গ্রাউন্ডস, পিচ ঘুরে দেখেছেন বিসিবির প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ।

মুলত: বিসিবি’র গ্রাউন্ডস কমিটির চেয়ারম্যান হানিফ ভুইয়ার আমন্ত্রণে দেশের ক্রিকেট লিজেন্ট ফারুকের কক্সবাজার সফর।

বিসিবি টিচ কিউরেটর শ্রীলংকান গামিনী সিলভার নিপুন তত্ত্বাবধানে তৈরি ম্যাচ প্রাকটিস গ্রাউন্ডস মিলে ৩৪টি পিচ দেখে সন্তুষ্ট ফারুক আহমেদ ও হানিফ ভুইয়া।

এই সময় হানিফ ভুইয়া জানান, সব মিলে কক্সবাজারে যুব বিশ্বকাপের ১৭ থেকে ১৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

অন্যদিকে প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ জানান, নতুন ভেন্যু বিশ্বমানের গ্রাউন্ডস ও পিচ তৈরিতে একটু সময় লাগবে। আশা করি জানুয়ারির আগেই সব ঠিক হয়ে যাবে।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও সরকারকে আসরের পূর্ণাঙ্গ নিরাপত্তা নিশ্চিতে কাজ করতে হবে। আইসিসি ও সংস্থার অন্যান্য সদস্য দেশগুলোর নিরাপত্তা পরামর্শকরা সন্তুোষজনক পর্যায়ে গেলেই এই টুর্নামেন্ট হবে বলেও আইসিসির বোর্ড সভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে।

নিরাপত্তার অজুহাতে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দল এবং দক্ষিণ আফ্রিকার নারী দল বাংলাদেশ সফর স্থগিত করে। এরপর বাংলাদেশে হতে যাওয়া অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ নিয়েও সংশয় দেখা দেয়।

দুবাইতে ৯ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে আইসিসির পাঁচ দিনব্যাপী সভা। প্রথম দিন প্রধান নির্বাহীদের সভা হয়। শনিবার হয় এফটিপি ও গভর্নেন্স কমিটির সভা। আর পরিচালনা পর্ষদের সভা হয় গতকাল সোমবার ও আজ মঙ্গলবার।

বোর্ড সভায় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। এই সভায় নেওয়া উল্লেখযোগ্য সিদ্ধান্তগুলো হলো;

১. বিশ্ব ক্রিকেটের উন্নয়নে সংস্থার সহযোগী সদস্য দেশগুলোকে সরাসরি আর্থিক সাহায্য দেওয়ার বাজেট ১২৫ মিলিয়ন ডলার থেকে বাড়িয়ে ২০৮ মিলিয়ন ডলার করা (২০১৬-২০২৩ সাল পর্যন্ত)।

২. ২০১৭ সাল থেকে প্রমীলা বিশ্বকাপ ক্রিকেট নতুন ফরম্যাটে অনুষ্ঠিত হবে।

৩. ২০১৬ থেকে ২০২৩ সাল পর্যন্ত পুরুষ ও প্রমীলা ক্রিকেটে বিভিন্ন ফরম্যাটে প্রাইজমানির পরিমাণ বৃদ্ধি করা।

শিরোনাম ডট কম
শিরোনাম ডট কম । অনলাইন নিউজ পোর্টাল Shironaam Dot Com । An Online News Portal
http://www.shironaam.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *